শিরোনাম
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২ জুন

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২ জুন

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি আগামী ২ জুন পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৬ মে) তারেক রহমানের আইনজীবী অ্যাডভোকেট বোরহান উদ্দিন মামলাটির বাদী দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক হারুন অর রশিদকে জেরা শেষ করেন।
এরপর মামলার অপর দুই সাক্ষী মামলাটির রেকর্ডিং অফিসার এসএম গাফফারুল ইসলাম ও সোনালী ব্যাংকের প্রিন্সিপ্যাল অফিসার শফিউদ্দিন মিয়ার জবানবন্দি গ্রহণ করেন আদালত।
রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। আসামি পক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারক আগামী ২ জুন জেরার জন্য দিন ধার্য করেন।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াসহ আসামি মোট ছয় জন। অন্য পাঁচ আসামি হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।
আসামিদের মধ্যে ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক, বাকিরা জামিনে আছেন। তারেক রহমানের পক্ষে তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া আদালতে আইনজীবীর হাজিরা দাখিল করেন।
২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।
২০১৪ সালের ১৯ মার্চ এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন ঢাকা তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের আগের বিচারক বাসুদেব রায়।

পড়ে দেখুন

মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক ড্রামা নতুন করে প্রকাশ্যে আসছে

মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক ড্রামা নতুন করে প্রকাশ্যে আসছে। ড. মাহাথির মোহাম্মদ ক্ষমতা হারানোর পর অনেকেই মনে …