শিরোনাম
প্রচ্ছদ / রাঙ্গামাটি / মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটসহ ১১ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ

মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটসহ ১১ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ

রাঙ্গামাটি শহরে অভিযান চালিয়ে মোটরসাইকেল চোর চক্রের ১১ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় ৬টি মোটরসাইকেল ও বিপুল পরিমাণ মোটরসাইকেল চুরির সরঞ্জাম, বিআরটিএ যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়। এই চক্রটি তিন পার্বত্য জেলায় মোটরসাইকেল চুরির সাথে সম্পৃক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টানা চার রাত অভিযান চালিয়ে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে সিন্ডিকেটের মুল হোতাসহ এদের আটক করা হয়। সোমবার বেলা ১২টার দিকে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রাঙ্গামাটি জেলা পুলিশ সুপার (ক্রাইম) মো. শহীদুল্লাহ হক এসব তথ্য জানান।
এ সময় তাদের দেয়া তথ্য মতে ৬টি মোটরসাইকেল ও বিপুল পরিমাণ মোটরসাইকেল চুরির বিপুল পরিমাণ সরঞ্জাম, ভুয়া বিআরটিএ কাগজপত্র, ভুয়া ডিজিটাল নম্বর প্লেট উদ্ধার করে পুলিশ।
আটককৃতরা হলো-সুমন চাকমা (২৪), নিপন ত্রিপুরা (২৬), মনছুর (২৮), রবিউল হাসান রাকিব (২০), শেখ মুহাম্মদ হুমায়ন কবির (২৯), আবুল ফজন শামীম (৩৮), আলাউদ্দীন (৩৬), এরশাদ (২৩), তারেক (২৭), আব্দুল মাবুদ (২৯), অংচিং মং মারমা (২৫)।
গতকাল দুপুরে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার মাঠে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে ঘটনা সম্পর্কে বর্ণনা দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শহীদ উল্লাহ। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) চিত্তর রঞ্জন পাল, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ রশিদ সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে রাঙ্গামাটি জেলা পুলিশ সুপার (ক্রাইম) মো. শহীদুল্লাহ হক আর বলেন, সম্প্রতি রাঙ্গামাটি শহরে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা উদ্বেগ জনকভাবে বেড়ে যায়। এঘটনায় থানায় একাধিক মামলাও হয়। তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে ২৬মে রাত থেকে টানা চারদিন রাঙ্গামাটি পুলিশ সুপার সৈয়দ তারিকুল হাসান নেতৃতে জেলা পুলিশ সুপার (ক্রাইম) মো. শহীদুল্লাহ হক, পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) চিত্তর রঞ্জন পাল, কোতয়ালী থানার কর্মকর্তা মো. রশিদ ও পুলিশ সদস্য ইউসুফ ও সৌরজিতসহ পুলিশের একটি যৌথদল মোটরসাইকেল চোর ও পারচারকারীদের ধরার জন্য রাঙ্গামাটি শহরের রিজার্ভ বাজার, তবলছড়ি, কাঠালতলী, কলেজ গেইট, বনরূপা, পুলিশ লাইন, উন্নয়ন বোর্ড সংলগ্ন নিচের পাড়া, মোহসেন কলোনী এলাকায় বেশ কয়েকবার অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনা করার সময় বিভিন্ন তথ্য মোতাবেক রাঙ্গামাটি ছাড়াও রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সীমান্তবর্তী রাঙ্গুনিয়া এলাকা থেকে এদের আটক করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্তরা মোটর সাইকেল চুরি ও পাচারকরার কথা স্বীকার করেন। তারা দীর্ঘ দিন ধরে এসব কাজ করে আসছিল বলে জানান তিনি।
রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার কর্মকর্তা মো. রশিদ জানান, রাঙ্গামাটি শহরের মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় অভিযুক্ত আটক আসামিদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে মোটর সাইকেল চুরির ৩৭৯ ধারায় পৃথক পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পড়ে দেখুন

তৃণমূল সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন এ কে এম মকছুদ আহমেদ

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ সমাজের সুষ্ঠু বিকাশে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার গুরুত্ব তুলে ধরে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী …