শিরোনাম
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / মুহিতকে বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান ফখরুলের

মুহিতকে বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান ফখরুলের

বুধবার গুলশান কার্যালয়ে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটের ওপর পর্যালোচনামূলক প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিএনপির মহাসচিব অর্থমন্ত্রীর প্রতি এই আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, “বাজেট সংসদে উপস্থাপনের পরদিন অর্থমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘বিএনপি কোনো রাজনৈতিক দলই না’। তার পক্ষেই এমন কথা বলাটা স্বাভাবিক। কারণ উনি কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বই নন।”
তবে পরক্ষণের এই বিএনপি নেতা বলেন, অর্থমন্ত্রীর মতো একজন জ্যেষ্ঠ নাগরিকের কাছ থেকে এ ধরনের বক্তব্য তারা আশা করেননি।
“আমরা আশা করব, তিনি তার এই বক্তব্য প্রত্যাহার করে নেবেন। রাজনৈতিক ভাষায় কথা বলবেন-এটাই আমরা তার কাছ থেকে প্রত্যাশা করি।”
গত ২ জুন অর্থমন্ত্রী সংসদে বাজেট উত্থাপনের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় একে ‘প্রতিক্রিয়াশীল’ বাজেট বলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
পরদিন বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মুহিত বলেন, ‘অস্তিত্বহীনরাই’ বাজেটকে ‘প্রতিক্রিয়াশীল’ বলছে। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর এই সদস্য বলেন, “এটা (বাজেটকে প্রতিক্রিয়াশীল বলা) একটা রাজনৈতিক অবস্থান। পার্টিকুলার পার্টি, হু হ্যাভ সেক্রিফাইসড দেয়ার এক্সিসটেন্স, দে ডু নট এক্সিস্ট। বেগম জিয়া, যেভাবেই হোক, যা কিছু করেন, এই মুহূর্তে এটা কোনও দল নয়। বিরোধী দলতো নয়ই।”
তবে মির্জা ফখরুল বলছেন, “বিএনপির মতো একটি পুরনো রাজনৈতিক দল, যারা বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবচেয়ে বড় ব্যাপক ভূমিকা পালন করেছে, গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে; সেই দলকে রাজনৈতিক দল নয় বলাটা এটা তার (অর্থমন্ত্রী) কাছ থেকে আমরা আশা করি না।”
অর্থমন্ত্রীকে নিয়ে তিনি বলেন, “তিনি (মুহিত) পাকিস্তান আমলে বড় মাপের আমলা ছিলেন, বাংলাদেশ সরকারের আমলেও ছিলেন। এরপর ওই আমলাত্বের গুণেই এরশাদ সরকারের আমলে তিনি মন্ত্রী হয়েছিলেন, অর্থমন্ত্রী ছিলেন। পরবর্তীকালে আওয়ামী লীগের আমলেও অর্থমন্ত্রী হয়েছেন, এখনো আছেন।”

পড়ে দেখুন

মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক ড্রামা নতুন করে প্রকাশ্যে আসছে

মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক ড্রামা নতুন করে প্রকাশ্যে আসছে। ড. মাহাথির মোহাম্মদ ক্ষমতা হারানোর পর অনেকেই মনে …