শিরোনাম
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / জঙ্গি মামলা: চট্টগ্রামে পুলিশকে সহায়তায় রাষ্ট্রপক্ষ

জঙ্গি মামলা: চট্টগ্রামে পুলিশকে সহায়তায় রাষ্ট্রপক্ষ

চট্টগ্রামের জজ আদালতে ফৌজদারি মামলা পরিচালনায় সরকার নিযুক্ত কৌঁসুলি ফখরুদ্দীন মঙ্গলবার মুখ্য মহানগর হাকিম শাহজাহান কবিরকে চিঠি দিয়ে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।
জঙ্গিদের জামিন নিয়ে পুনরায় অপরাধে জড়িয়ে পড়ার বিষয়টি গুলশান ও শোলাকিয়ায় হামলার পর নতুন করে আলোচনায় উঠে আসার মধ্যে চট্টগ্রামের পিপির এই সিদ্ধান্ত এল।
চিঠিতে ‘বর্তমান উদ্ভূত পরিস্থিতির’ কথা বলা হলেও মূলত জঙ্গি ও নাশকতার ঘটনায় করা মামলার আসামিদের জামিন ও রিমান্ড শুনানির বিষয়েই সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছে বলে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলিরা জানান।
পিপি ফখরুদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “জঙ্গিদের বিরুদ্ধে মামলা আসছে। ভবিষ্যতে হয়ত আরও আসবে। এছাড়া নাশকতার বিভিন্ন মামলার বিষয়টিও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।
“এসব মামলার আসামিরা যাতে সহজে জামিন না পায় এবং রিমান্ড শুনানি যাতে যথাযথভাবে হয়, সেটা নিশ্চিত করতে চাই।”
বিচার বিভাগ আলাদা হওয়ার পর আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সলিসিটর এর কার্যালয় থেকে ২০০৯ সালে জারি করা এক পরিপত্র অনুসারে মামলা বিচারের জন্য প্রস্তুত হওয়ার পরই পিপি ও এপিপিরা মামলা পরিচালনা করবেন। তার আগ পর্যন্ত পুলিশের প্রসিকিউশন বিভাগই মামলা পরিচালনা করেন।
চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্ত্তী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,২০০৯ সালের পরিপত্র অনুসারে মামলা বিচারের জন্য প্রস্তুত হওয়ার আগ পর্যন্ত আদালত পরিদর্শক ও উপ-পরিদর্শকরাই মামলা পরিচালনা করবেন। “মামলা পরিচালনায় দক্ষ পুলিশ সদস্যরাই প্রসিকিউশন শাখায় দায়িত্ব পালন করেন,” বলেন তিনি। পিপি ফখরুদ্দিন বলেন, “আমরা মামলা পরিচালনা করব না। শুধু জামিন ও রিমান্ড শুনানিতে প্রসিকিউশনকে সহায়তা করব। বিচারের জন্য প্রস্তুত হলেই মামলা পরিচালনা করব।”
এই সহায়তা দিতে চট্টগ্রাম মহানগরের চারটি হাকিম আদালতের জন্য একজন অতিরিক্ত পিপিও নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে বলে চিঠিতে জানান তিনি।
হাকিম আদালত ১,২,৩ ও ৪ এর জন্য এ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অতিরিক্ত পিপি নোমান চৌধুরী মঙ্গলবার বিকালে বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে একটি নাশকতার মামলায় রিমান্ড শুনানিতে প্রসিকিউশনকে সহায়তা করেছেন বলেও নিশ্চিত হওয়া গেছে।
পিপির চিঠিতে বলা হয়- “বর্তমান উদ্ভূত পরিস্থিতি বিবেচনায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত সমূহে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ মামলার আসামিদের জামিন শুনানি, রিমান্ড শুনানিতে প্রসিকিউশন ইউনিটকে সহায়তা দেওয়া আবশ্যক বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত অতিরিক্ত পিপি নোমান চৌধুরীকে উপরোক্ত কার্য সম্পাদনের দায়িত্ব দেওয়া গেল।”
গুরুত্ব বিবেচনায় ‘প্রয়োজন হলে’ অন্য হাকিম আদালতগুলোতেও শুনানিতে সহায়তা করতে আরও কয়েকজন অতিরিক্ত পিপিকে দায়িত্ব দেওয়া হবে বলে জানান ফখরুদ্দিন।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …