শিরোনাম
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / ডালাসে স্নাইপারের গুলিতে ৫ পুলিশ খুন, আটক ৩

ডালাসে স্নাইপারের গুলিতে ৫ পুলিশ খুন, আটক ৩

এটা যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে পুলিশের উপর সবচেয়ে ভয়াবহ বন্দুক হামলার ঘটনা।
বন্দুকধারীদের গুলিতে আরো ছয়জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।
এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ তিন জনকে আটক করেছে। চতুর্থ এক ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।
বৃহস্পতিবার রাতে ডাউনটাউনে ওই হামলার পর অস্ত্রধারী এক ব্যক্তি কোনো একটি গ্যারেজে অবস্থান নেয় এবং শুক্রবার সকাল পর্যন্ত পুলিশের সঙ্গে তার গোলাগুলি হয়।
ওই ব্যক্তি পুলিশকে শহরজুড়ে বোমা পেতে রাখার হুমকি দিতে থাকে।

তবে যে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে সেটি গ্যারেজে অবস্থান নেওয়া বন্দুকধারীর কিনা তা এখনো নিশ্চিত করেনি পুলিশ।
স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, শুক্রবার ভোরে পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলির এক পর্যায়ে ওই ব্যক্তি আত্মহত্যা করে।
এই হামলার পরিকল্পনা খুব সাবধানে করার পর তা বাস্তবায়ন করা হয়েছে বলে মনে করছে ডালাস পুলিশ।
স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৯টায় ডালাস শহরে কৃষ্ণাঙ্গদের বিক্ষোভ শুরুর পর দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের ওপর গুলি চালায় স্নাইপার রাইফেলধারীরা। এ সময় মিছিলকারীদের মধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য ছুটোছুটি শুরু হয়ে যায়।
হামলার পর এক সংবাদ সম্মেলনে ডালাস পুলিশ প্রধান ডেভিড ব্রাউন বলে এটা একটি সমন্বিত হামলা। “ডাউনটাউনের যে এলাকায় বিক্ষোভ মিছিলটি শেষ হতে যাচ্ছিল সেখানে কয়েকটি উঁচু ভবনে ত্রিভুজআকৃতিতে তারা অবস্থান নেয় এবং স্নাইপার রাইফেল দিয়ে একযোগে হামলা চালায়।”
এ হামলার পর পোল্যান্ড সফররত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ডালাস মেয়রের সঙ্গে কথা বলেন এবং আমেরিকার জনগণের পক্ষ থেকে ‘গভীর সমবেদনা’ প্রকাশ করেন।
এ ঘটনা তদন্তে ডালাস পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে এফবিআই। ফেডারেল সরকারের পক্ষে থেকেও সহযোগিতার কথা জানিয়েছেন ওবামা।
ওবামা বলেন, “আমরা এখনো পুরো বিষয়টি জানতে পারিনি। শুধু জানতে পেরছি সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপর নিষ্ঠুর, পরিকল্পিত ও ঘৃণ্য হামলা চালানো হয়েছে।”

পড়ে দেখুন

মাঙ্কিপক্স’ নিয়ে দেশের সব বন্দরে সতর্কতা জারি

ঢাকা অফিস :: করোনার মহামারি শেষ না হতেই নতুন করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে …