শিরোনাম
প্রচ্ছদ / বান্দরবান / বান্দরবানে হত দরিদ্র চাষীদের মাঝে উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে পাওয়ার টিলার বিতরণ

বান্দরবানে হত দরিদ্র চাষীদের মাঝে উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে পাওয়ার টিলার বিতরণ

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥ পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেছেন, পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের চাঁদা দিয়ে উন্নয়ন মূলক কাজ করতে হলে প্রয়োজনে সব ধরণের উন্নয়ন কাজ বন্ধ করে দেয়া হবে।
শুক্রবার (২২ জুলাই) দুপুরে বান্দরবানে মন্ত্রীর বাসভবন মিলনায়তনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে কৃষকদের মাঝে পাওয়ার ট্রিলারর’সহ কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।
পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, যে এলাকাগুলোতে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চলবে, সেখানে কোনো ধরণের উন্নয়ন করা হবেনা। অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জনগনকেই প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।
তিনি বলেন, চাঁদাবাজির টাকায় সন্ত্রাসীরা অস্ত্র কিনছে। কিন্তু পাহাড়ের গরীব-নিরীহ মানুষদের একটি পয়সাও সাহায্য করেনা। চাঁদাবাজ-সন্ত্রাসীরা পাহাড়ের মানুষদের খাবার কেড়ে নিচ্ছে। আর চুপচাপ পাহাড়ী জনগোষ্ঠীরা সব অত্যাচার মেনে নিচ্ছে। গ্রাম-মহল্লায় প্রতিরোধ গড়ে তুলে সন্ত্রাসীদের এলাকা থেকে বিতাড়িত করতে হবে।
বান্দরবান পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন-বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যসাপ্রু মারমা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি একেএম জাহাঙ্গীর, কুহালং ইউপি চেয়ারম্যান সানুপ্রু মারমা প্রমুখ।
পাওয়ার টিলার প্রদান অনুষ্টানে কৃষকদের উদ্দেশ্য করে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি বলেন, বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার কৃষক বান্ধব সরকার তাই কৃষকদের উন্নয়নে কাজ করছে। কৃষকদের বিনামুল্যে সার, চারা, পাওয়ার টিলারসহ নানা চাষাবাদের সামগ্রী প্রদান করছে সরকার। সরকারের এই সামগ্রীগুলো গ্রহন করে কৃষকরা আরো বেশি স্বাবলম্বী হতে পারবে। এসময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, শুধু পরের উপর নিভর না করে নিজেকে নিজের ওপর নির্ভর হতে হবে। কৃষকেরা সঠিকভাবে কৃষিকাজে মনোনিবেশ করলে বাংলাদেশ আরো স্বয়ংসম্পুর্ণ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রতিমন্ত্রী।
নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে কৃষক সমিতি মাঝে ৬টি পাওয়ার ট্রিলার’সহ কৃষি যন্ত্রপাতি বিবতরণ করা হয়েছে। এ দিয়ে কুহালং ইউনিয়নে ১২’শ একর কৃষি জমি চাষাবাদ করা হবে।

পড়ে দেখুন

পার্বত্য তিন জেলার পরিত্যক্ত সেনা ক্যাম্পগুলোতে শিগগিরই এপিবিএন মোতায়েন করার ঘোষণা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিদেক :: রাঙামাটি: পার্বত্য তিন জেলার পরিত্যক্ত সেনা ক্যাম্পগুলোতে শিগগিরই এপিবিএন মোতায়েন করার ঘোষণা …