শিরোনাম
প্রচ্ছদ / ব্রেকিং নিউজ / বঙ্গবন্ধুর ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে সদর উপজেলা ও সহযোগী সংগঠন উদ্যোগে বালুখালীতে আলোচনা সভা

বঙ্গবন্ধুর ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে সদর উপজেলা ও সহযোগী সংগঠন উদ্যোগে বালুখালীতে আলোচনা সভা

॥ মিল্টন বাহাদুর ॥ অবৈধ অস্ত্র দিয়ে স্থানীয় রাজনৈতিক দল জিম্মি করে রেখেছে স্থানীয় এলাকাবাসীকে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার। তিনি বলেন, প্রতিটি ক্ষেত্রে আওয়ামীলীগকে দূর্বল করতে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। প্রতিটি নির্বাচনে তারা সাধারন মানুষদের অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নির্বাচনে যাতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী জয় হতে না পারে তার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তাই বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে।
শনিবার (২৭ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস ও বাংলাদেশ মহান স্থপতি হাজার বছরের শ্রেষ্ট বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে রাঙ্গামাটির বালুখালী সাপমারা পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা ও সহযোগী সংগঠন সমূহের আয়োজনে আওয়ামীলীগ রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হৃদয় বিকাশ চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোক সভায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবুল, আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল মাওলা, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য সাধন মনি চাকমা, ছাত্রলীগ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা, সদর উপজেলা আওয়ামলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক  ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য অমিত কুমার রাজু।
তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ছিলেন পার্বত্যাঞ্চলের সুবিধা বঞ্চিত মানুষের অগ্রদূত। তিনি সব সময় পার্বত্য এলাকার মানুষের কথা ভাবতেন। তাই তিনি পার্বত্য এলাকার কৃষ্টি, সাংস্কৃতি, ঐতিহ্য যাতে ধরে রাখা যায় সেই চেষ্টা করেছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজসমূহ সমাপ্ত করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। ১৯৯৭ সালে শান্তিচুক্তি করে পার্বত্য এলাকায় শান্তি ফিরিয়ে এনেছেন। পার্বত্য এলাকায় যাতে উন্নয়ন ধারা অব্যাহত থাকে তার জন্য বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। আর একশ্রেণীর কুচক্রিমহল এইসব উন্নয়নের ধারা ব্যাহত করতে উঠেপড়ে লেগেছে। প্রতিটি ক্ষেত্রে তারা বাধা সৃষ্টি করে পার্বত্য এলাকায় অশান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা চালিয়ে যাচ্ছে। তাই যার যার অবস্থান থেকে সকল বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে আমাদের সামনে গিয়ে যেতে হবে।
আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি সদর থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য শাহ জাহান, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা দীপক  চাকমা, বিকাশ দে, অজিত তালুকদার, কৃতিময় চাকমা, লাল মিয়া, আবুল কালাম, নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ হামিদ ও ফরহাদ হোসেন প্রমুখ।

পড়ে দেখুন

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা

চট্টগ্রাম ব্যুরো :: ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছেন সিইউজে …