শিরোনাম
প্রচ্ছদ / ব্রেকিং নিউজ / রাঙ্গামাটির বিভিন্ন প্রাঃ বিদ্যালয়ের শিশুদের মাঝে ইমপ্রেস গ্রুপের খেলনা বিতরণ ও লাইব্রেরী গঠন

রাঙ্গামাটির বিভিন্ন প্রাঃ বিদ্যালয়ের শিশুদের মাঝে ইমপ্রেস গ্রুপের খেলনা বিতরণ ও লাইব্রেরী গঠন

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ প্রাথমিক বিদ্যালয় হচ্ছে শিশুদের সঠিকভাবে গড়ে তোলার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। প্রাথমিক স্তর থেকেই শিশুদের লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলার প্রতি ও মনযোগী করে গড়ে তোলার পরিবেশ তৈরী করতে হবে। আর শিশুদের সেভাবে গড়ে তুলতে সারা বাংলাদেশে খেলনা ব্যাংক যেভাবে কাজ করে যাচ্ছে তা দেশের কল্যাণে গুরুত্বপুর্ণ ভূমিকা রাখবে।
সোমবার ইমপ্রেস গ্রুপের একটি নিজস্ব সংস্থা খেলনা ব্যাংকের উদ্যোগে রাঙ্গামাটির ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুদের মাঝে খেলনা বিতরণ ও স্কুলে খেলনা ব্যাংকের পক্ষ থেকে স্থায়ী খেলনা কর্ণার গড়ে দেয়া কার্যক্রমের প্রথমদিনে শহরের বিভিন্ন স্কুৃলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে রাঙ্গামাটি পৌরসভা মেয়র মোঃ আকবর হোসেন চৌধুরী এসব কথা বলেন।
খেলনা ব্যাংকের পক্ষ থেকে সোমবার কার্যক্রমের প্রথম দিনে রাঙ্গামাটি শিশু পরিবার, রাঙ্গামাটি প্রতিবন্ধী স্কুল ও কাঠালতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শিক্ষার্থীদের মাঝে খেলনা বিতরণ করা হয় এবং প্রতিটি স্কুলে শিশুদের খেলাধূলার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে স্থায়ী খেলনা কর্ণার তৈরী করে দেয়া হয়।
রাঙ্গামাটির ৩টি স্কুৃলে শিশুদের মাঝে খেলনা বিতরণকালে অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদেও সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, দৈনিক গিরিদর্পণের সম্পাদক একেএম মকছুদ আহমদ খেলনা ব্যাংকের প্রোগ্রাম অফিসার মেহেদী হাসান, রিফাত কামাল, চ্যানেল আইয়ের রাঙ্গামাটি জেলা প্রতিনিধি মনসুর আহম্মেদ,রাঙ্গামাটি শিশু পরিবারের পরিচালক রপনা চাকমা, রাঙ্গামাটি প্রতিবন্ধী স্কুলের  সাধারন সম্পাদক নুরুল আবচার,কাঠালতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ বদিউল আলম, তরুণ সমাজকর্মী সুজন বড়–য়া, রিপণ ত্রিপুরা বাবু ও সোহানা প্রমূখ।
রাঙ্গামাটি পৌরসভা মেয়র মোঃ আকবর হোসেন চৌধুরী  আরো শিশুর মেধা বিকাশে লেখা পড়ার পাশাপাশি খেলাধূলার কোন বিকল্প নেই। তাই সেভাবে শিশুদের গড়ে তুলতে বিভিন্ন সংস্থার পাশাপাশি সমাজের সকল সচেতন মানুষকে ও এগিয়ে আসতে হবে।
দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক সাংবাদিক একেএম মকছুদ আহমদ বলেন,এখানে লেখাপড়ার পাশাপাশি শিশুদের খেলাধূলার প্রতি আগ্রহী করতে খেলনা ব্যাংক যে উদ্যোগ নিয়েছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তিনি বলেন শিশুরা হচ্ছে আগামী দিনের ভবিষ্যৎ, তাই শিশুদেও লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলার পরিবেশ নিশ্চিত করতে অভিভাবকদের পাশাপাশি স্কুলের শিক্ষকদেরকে ও এগিয়ে আসতে হবে।
খেলনা ব্যাংক হচ্ছে ইনক্লুসিভ বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট নামের একটি বেসরকারি সংগঠনের কার্যক্রম। রাজধানীর তেজগাঁও এলাকায় খেলনা ব্যাংক ইমপ্রেস গ্রুপের আওতাধীন সংগঠনটি সারাবাংলাদেশে কাজ করছে বিগত প্রায় এক বছর ধরে।
খেলনা ব্যাংকের কর্মসূচি কর্মকর্তা মেহেদি হাসান ও রিফাত কামাল বলেন, পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটির কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে খেলনা ব্যাংকের উদ্যোগে শিশুদের মাঝে খেলনা বিরতণ ও ¯কুলে খেলানা জোন করতে গিয়ে আমরা রাঙ্গামাটির প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে  যে সাড়া পেয়েছি তাতে আমরা অভিভূত। খেলনা ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলেন, ভবিষ্যতে পার্বত্য এলাকার স্কুলগুলোতে যাতে খেলনা ব্যাংকের কার্যক্রম বাড়ানো যায় তার উদ্যোগ নেয়া হবে।
খেলনা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অভিযান স্কুলের জন্য নতুন খেলনা দিয়ে একটি খেলনা লাইব্রেরিও করে দিয়েছে।
ইনক্লুসিভ বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্টের পরিচালক (অপারেশনস) রায়হান রশিদ মজুমদার বলেন, ‘আমরা চাই সব শিশুর হাতে খেলনা পৌঁছে দিতে। আর খেলনাগুলো শিশুরা হাতে পাওয়ার পর তাদের মুখে যে হাসি দেখতে পাই, সেটাই আমাদের প্রাপ্তি।’ মঙ্গলবার শহরের আরো ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুদের মাঝে খেলনা বিতরণ ও খেলনা লাইব্রেরী করবে খেলনা ব্যাংক।

পড়ে দেখুন

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা

চট্টগ্রাম ব্যুরো :: ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছেন সিইউজে …