শিরোনাম
প্রচ্ছদ / জাতীয় / আওয়ামীলীগের জাতীয় কাউন্সিল পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুরকে গুরুত্বপূর্ণ পদে দেখতে চান নাইক্ষ্যংছড়ি আওয়ামীলীগ

আওয়ামীলীগের জাতীয় কাউন্সিল পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুরকে গুরুত্বপূর্ণ পদে দেখতে চান নাইক্ষ্যংছড়ি আওয়ামীলীগ

॥ আবুল বশর নয়ন, নাইক্ষ্যংছড়ি ॥ ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের কাউন্সিল নিয়ে কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা ছড়িয়ে পড়েছে। অন্যান্য জেলা-উপজেলার ন্যায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী সমর্থকরা এখন ২২-২৩ অক্টোবরের দিকে তাকিয়ে আছেন। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার নেতারা মনে করছেন, যথাসময়ে কাউন্সিলের মাধ্যমে দল আরো চাঙ্গা হবে। নেতাকর্মীদের মধ্যে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা তৈরি হবে। যা সংগঠনকে আরো বিকশিত ও শক্তিশালী করবে। আওয়ামী লীগের স্থানীয় ও তৃণমূল নেতারা চান নেতৃত্ব নির্বাচনে দক্ষতা এবং যোগ্যতার পাশাপাশি ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে। দল ও দলের প্রধানের প্রতি নিরঙ্কুশ আস্থা রয়েছে এমন নেতৃত্বকে সামনের কাতারে নিয়ে আসতে হবে।
বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যউচিং চাক, সরকারী চাকরীকালীন সময় থেকে বাংলাদেশের রাজনীতির গতিপ্রকৃতি পর্যবেক্ষণ করছেন। বর্তমানে তিনি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর মতে, আওয়ামী লীগের কাউন্সিল মানে রাজনীতিতে নতুন আবহ, নতুন মাত্রা। কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা পর থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী-সমর্থকসহ রাজনৈতিক মহলে উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সামনের কমিটিতে পার্বত্য অঞ্চলের রূপকার বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপিকে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে মনোনীত করে তাঁর সাংগঠনিক প্রতিভাকে আরো বিকশিত করার সুযোগ করে দেয়া উচিত বলে তিনি মনের। এ বিষয়ে তিনি আরো বলেন- বান্দরবানের রাজনীতিকে একটা উচ্চতর পর্যায়ে নিয়ে গেছেন। তার নেতৃত্বের কারণেই বান্দরবান সম্পীতির জেলা হিসেবে পরিচিত লাভ করেছে। তৃণমূল পর্যায়ও তার নেতৃত্বের কারণেই গতিশীল। এ অঞ্চলের জঙ্গিবাদ নির্মূলে সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে তিনি নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।
উল্লেখ্য, ১৯৯১ সন থেকে ২০১৪ সন পর্যন্ত টানা পাঁচটি সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত এবং একবার উপমন্ত্রী ও আরেকবার প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন বীর বাহাদুর। পাশাপাশি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ এবার ৫জানুয়ারী নির্বাচনে অর্ধের ভোটের ব্যবধানে সংসদ নির্বাচিত হয়ে পাহাড়ের প্রতিমন্ত্রী হওয়ার সোভাগ্য লাভ করেন বীর বাহাদুর এমপি।
উপজেলা আওয়ামীলীগে সদস্য সচিব মোহাম্মদ ইমরানসহ তাঁর শুভানুধ্যায়ীরা মনে করেন- বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাব প্রত্যক্ষভাবে উল্লেখযোগ্য। পাহাড়ী বাঙ্গালীর শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান এবং সরকারের নির্দেশনা মেনে দল এবং দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করেছেন বাংলাদেশ আয়ামীলীগে বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক ও বান্দরবান ৩০০ নং আসনের সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং। মুক্তিযুদ্ধ পূর্ববর্তী সময় থেকে দেশের গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে ধারাবাহিকভাবে কাজ করছেন তিনি। বীর বাহাদুর রাজনীতির অঙ্গনে এক বিশেষ ব্যক্তিত্ব হিসেবে ইতোমধ্যেই পরিগণিত হয়েছেন। তিনি বিগত পাঁচ বারের এমপি হিসেবে বান্দরবানে প্রভূত উন্নয়ন সাধন করেছেন।
উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা জানান, বিগত সময়ের সামগ্রীক অবদান বিবেচনা করে এই কাউন্সিলে তারা দলের অভিজ্ঞ নেতাদের কেন্দ্রীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদে দেখতে চান। যাতে করে পার্বত্য বান্দরবান আওয়ামী লীগ আগামীতেও দল ও দেশের জন্য নিবেদিত হয়ে কাজ করতে পারে।

পড়ে দেখুন

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক ভাষা আন্দোলনের শহীদদের …