শিরোনাম
প্রচ্ছদ / জাতীয় / জনগণের দুঃখ-দুর্দশা সরকারকে জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

জনগণের দুঃখ-দুর্দশা সরকারকে জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

জনগণের দুঃখদুর্দশা সরকারকে জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

জনগণের যাবতীয় সমস্যা ও দুঃখ-দুর্দশা খুঁজে বের করে তা সরকারকে জানাতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) রাতে তিনি তার সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতিমণ্ডলীর প্রথম সভার সূচনা বক্তব্যে এ নির্দেশনা দেন। শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এ সভা শুরু হয় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ শুধু একটি রাজনৈতিক দল নয়, এটি একটি প্রতিষ্ঠান। জন্মলগ্ন থেকে দলটি জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা ও ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।

আওয়ামী লীগ দেশের স্বাধীনতায় নেতৃত্ব দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দেশকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। এখন দেশের অর্থনৈতিক স্বাধীনতাও আনতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে হবে।

তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য-উদ্দেশ্যের কথা তুলে ধরে বলেন, আমাদের লক্ষ্য দ্রুত দেশকে উন্নত করা। এজন্য দলকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে হবে। সেজন্য সরকারের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সকলকে সহযোগিতা করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী জিয়াউর রহমানের হাত ধরে স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধুর খুনিরা রাষ্ট্রের কর্তৃত্ব নেয়। দীর্ঘ ২১ বছর তারা ক্ষমতায় থেকে দেশকে অর্থনৈতিকভাবে পঙ্গু করতে চেয়েছিল। যেন বাংলাদেশের মানুষ স্বাধীনতার সুফল ভোগ করতে না পারে। স্বাধীনতার নীতি-আদর্শ ধ্বংস করাই ছিল তাদের কাজ।

বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর দেশ সঠিক ধারায় ফিরে আসে। সরকার যে জনগণের সেবক তা উপলব্ধি করতে শুরু করে দেশের মানুষ। আমরা দেশ ও জনগণের সেবা করার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি।

সভায় আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ সভাপতিমণ্ডলীর ১৬ সদস্যের (ঘোষিত) মধ্যে ১৫ সদস্যই (সভাপতিসহ) অংশ নিয়েছেন। এরা হলেন- সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, কাজী জাফর উল্লাহ, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, নুরুল ইসলাম নাহিদ, কর্নেল (অব.) ফারুক খান, ড. আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান, রমেশ চন্দ্র ও পীষুষ কান্তি ভট্টাচার্য। অংশ নেননি কেবল পারিবারিক কারণে ১৫ দিনের ছুটিতে লন্ডনে যাওয়‍া সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …