শিরোনাম
প্রচ্ছদ / তৃণমূল / নাইক্ষ্যংছড়িতে মুক্তিপন দিয়ে চারদিন পর ছাড়া পেল পিএইচপি রাবার বাগানের ৩ প্রহরী

নাইক্ষ্যংছড়িতে মুক্তিপন দিয়ে চারদিন পর ছাড়া পেল পিএইচপি রাবার বাগানের ৩ প্রহরী

নাইক্ষ্যংছড়িতে মুক্তিপন দিয়ে চারদিন পর ছাড়া পেল
পিএইচপি রাবার বাগানের ৩ প্রহরী
॥ মো.আবুল বাশার নয়ন ॥
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীস্থ পিএইচপি রাবার বাগানের তিন নাইটগার্ড (প্রহরী) কে চারদিন পর ছেড়ে দিয়েছে অপহরণকারীরা।  বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে তাদেরকে বাইশারী সদর থেকে অন্তত ১৫কি:মি উত্তরে দুর্গম আলীক্ষ্যং-চাইল্লাতলী এলাকায় ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে দুই দফায় মোট ৩লাখ টাকা মুক্তিপন দিতে হয়েছে বলে অপহৃত তিন পরিবার দাবী করেছে। এর আগে গত শনিবার রাতে পিএইচপি রাবার বাগানের ৮নং ব্লকে পাহারারত অবস্থায় অস্ত্রধারী ১৫/২০জন উপজাতীয় সন্ত্রাসী দল আজিজুল হক, নুরুল আলম ও আবদু শুক্কুরকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।
পরে উপজাতীয় ওই সন্ত্রাসী দলটি নুরুল আলমের মোবাইল ফোন থেকে তাদের পরিবারের কাছ থেকে ৩লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে। এরপর লামা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আল মাহামুদ হাসান ঘটনাস্থল পরির্দশন করে সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে সাড়াশি অভিযান চালায় এবং অপহরণ নাকি আত্মগোপন এমন প্রশ্নে নুরুল আলম ও আজিজুল হকের দুই স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের নামে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে বন্দি করে রাখে। যদিওবা পরদিন সোমবার দুপুর ১২টায় তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়।
এ বিষয়ে আজিজুল হকের স্ত্রী জেসমিন আক্তার ডলি সাংবাদিকদের জানান- তাঁর স্বামী অপহরণ হলেও পুলিশ সম্পূর্ণ অমানবিক ভাবে তার দেড় বছর বয়সী ছেলেকে বাড়িতে রেখে রাতভর দুই নারীকে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে আটকে রাখে।
এদিকে পুলিশের নিষ্ফল অভিযানের পর অপহৃতদের মধ্যে আজিজুল হকের পরিবার মঙ্গলবার রাতে মুক্তিপনের ২লাখ টাকা সন্ত্রাসীদের হাতে পরিশোধ করে। কিন্তু অপহরণকারীরা অন্য দুইজনের টাকা না পাওয়ায় ওই তিনজনকে মুক্তি দেয়নি। বুধবার রাতে নুরুল আলমের পরিবারের পক্ষ থেকে আরো ১লাখ টাকা পরিশোধ করলে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তিন জনকে ছেড়ে দেয় অপহরণকারীরা।
মুক্তি পাওয়ার পর অপহরণের শিকার নুরুল আলম ও আজিজুল হক সাংবাদিকদের জানান- অপহরণের পর তাদের তিন জনকে পৃথক ভাবে চোখ বেধে দীর্ঘ পথ হাটানো হয়। কোন ধরনের খাবার সরবরাহ না করে শারিরীক নির্যাতন করা হয়।
এ বিষয়ে বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ইনচার্জ এসআই আবু মুসা জানান- অপহরণের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলসহ সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে বিজিবি-পুলিশ যৌথ অভিযান পরিচালনা করেছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে চাইল্লাতলী নামক এলাকায় ওই তিনজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে বাইশারী বাজার থেকে ওই তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য নিজ নিজ বাড়িতে পৌছে দেওয়া হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ পুলিশ পায়নি বলে জানান তিনি। এছাড়াও অপহৃতদের কারো মুক্তিপন দিতে হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করে জানায়নি পুলিশ।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …