শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / বান্দরবান প্রেসক্লাবের উদ্দ্যোগে তিন পার্বত্য জেলার ৪ গুণী সাংবাদিককে সম্মাননা প্রদান

বান্দরবান প্রেসক্লাবের উদ্দ্যোগে তিন পার্বত্য জেলার ৪ গুণী সাংবাদিককে সম্মাননা প্রদান

বান্দরবান প্রেসক্লাবের উদ্দ্যোগে তিন পার্বত্য জেলার ৪ গুণী সাংবাদিককে সম্মাননা প্রদান
সামাজিক কর্মকান্ডেও সাংবাদিকদের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে
——বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি
পার্বত্য চট্টগ্রাম দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে
——কে.এম নাজমুল আলম সিদ্দিকী
বান্দরবানের সাংবাদিকরা প্রশাসনকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদানে সহায়তা করছে
——- দিলীপ কুমার বণিক
ভাল সাংবাদিকের ভাল বন্ধুও থাকে
—— এ,কে,এম মুকসুদ আহমেদ
॥ আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, বান্দরবান ব্যুারো ॥ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, পেশাগত কাজের ফাঁকে ফাঁকে সামাজিক কর্মকান্ডেও সাংবাদিকদের সমান ভূমিকা থাকতে হবে। এতে সমাজের মানুষ উপকৃত হতে পারে। তিনি বলেন, সাংবাদিকগণ নিজের খেয়ে মানুষের উপকারে ব্যস্ত থাকেন। এজন্যই তাঁরা সমাজের মানুষের কাছে অধিক সম্মান পেয়ে থাকেন।
গতকাল বান্দরবান প্রেসক্লাবের উদ্দ্যোগে আয়োজিত গুণীজন সম্মাননা ও প্রেসক্লাবের হলরুম আধুনিকায়ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বীর বাহাদুর বলেন, বান্দরবানে চাকুরীর সুবাদে আগত কর্মকর্তাগণ তাঁদের কাজের গুণে অমর হয়ে আছেন। এদের একজন সাবেক জেলা প্রশাসক কে.এম নাজমুল আলম সিদ্দিকী। তিনি বলেন, মানুষ তাঁর কর্মের গুণে বেঁচে থাকেন যুগযুগ ধরে। বীর বাহাদুর বলেন, বান্দরবানে উন্নয়নে সাংবাদিকদের অবদান কোন অংশে কম নয়। সাংবাদিকদের লিখনির মাধ্যমে বান্দরবান আজ সারা বিশ্বে পরিচিত। তিনি সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে আরো বেশি কর্মসুচি গ্রহণের জন্য প্রেসক্লাবের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। বীর বাহাদুর বলেন, প্রত্যেকটি জিনিষকে পজেটিভ ভাবে দেখলেই চলার পথ সুন্দর হয়।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বান্দরবানের সাবেক জেলা প্রশাসক কে.এম নাজমুল আলম সিদ্দিকী বলেছেন, বান্দরবান এখন আর সেই বান্দরবান নেই। বান্দরবানে উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্যের কারণে দেশবাসীর কাছে এ জেলা নতুন করে পরিচিত হয়ে উঠেছে। নাজমুল আলম বলেন, বান্দরবান প্রেসক্লাব ভবনের জমি প্রয়াত বোমাং রাজা মংশৈপ্রু চৌধুরীর সুপারিশে তিনি প্রেসক্লাবের নামে রেকর্ড করেছেন। এই ভবন স্থাপনের ভিত্তি প্রস্তর দিয়েছেন তিনি। জেলা শহরের উপর ৫তলা ভবনটি এখন সকলের দৃষ্টি কাড়ে। তিনি বলেন,সাংবাদিকদের ভাল মনের অধিকারী হতে হবে। ভাল কাজের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রামের অনেক গুণী ব্যক্তিকে এখনো মানুষ স্মরণ করেন। তিনি বান্দরবান প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে তাঁকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করায় প্রেসক্লাব কার্যকরী কমিটিকে ধন্যবাদ জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক বলেন, বান্দরবানের সাংবাদিকরা জেলা প্রশাসনের বন্ধু। তাঁরা তথ্য দিয়ে সর্বদা জেলা প্রশাসনের কাজে সহযোগিতা প্রদান করেন। তিনি বলেন, বর্তমান যুগ তথ্য নির্ভর যুগ। ভুল তথ্য প্রকাশের কারণে এলাকার অনেক বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে। তিনি তথ্য প্রকাশে সাংবাদিকদের সর্তক থাকার আহ্বান জানান। দিলীপ কুমার বণিক বলেন, সাবেক জেলা প্রশাসক নাজমুল আলম সিদ্দিকীকে বান্দরবান প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য পদ দিয়ে উপযুক্ত সম্মানে ভ’ষিত করা হয়েছে। এজন্য তিনি বান্দরবান প্রেসক্লাবের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
গুণীজন সম্মাননা প্রাপ্ত ব্যক্তিত্ব, পার্বত্য চট্টগ্রামের চারণ সাংবাদিক দৈনিক গিরিদর্পণ ও সাপ্তাহিক বনভ’মির সম্পাদক এ,কে এম মুকছুদ আহমেদ বলেছেন, ভাল সাংবাদিকদের ভাল বন্ধুও থাকে। তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে সংবাদপত্র প্রকাশে তাঁর অনেক অভিজ্ঞতা রয়েছে। স্মৃতিতে অনেক কঠিন দিনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, একসময় মত প্রকাশে কোন স্বাধীনতা ছিল না। কিন্তু এখন দিন বদলে গেছে। পাহাড়ের সাংবাদিকরা এখন মুক্ত চিন্তায় তাদের প্রতিবেদন প্রকাশ করার সুবিধা ভোগ করছেন। মুকছুদ আহমেদ বলেন, তিন পার্বত্য জেলা থেকে প্রকাশিত পত্রিকাগুলো আর্থিক দৈন্যতায় ভুগছে। তিনি বলেন, পত্রিকা প্রকাশ ও সাংবাদিকতাকে নেশা হিসেবে গ্রহণ করায় আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হওয়া সত্ত্বে লোকসান দিয়ে দৈনিক গিরিদর্পণ প্রকাশ করা হচ্ছে। এঅবস্থায় বেশি দিনে টিকে থাকা খুবই কষ্টসাধ্য বলে তিনি মন্তব্য করেন।
বান্দরবান প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চুর সভাপতিত্বে অনুষ্টানে অন্যান্যদের মধ্যে বান্দরবান সদর জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল হায়দার মহিউদ্দিন, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, বিটিভির জেলা সংবাদ প্রতিনিধি মনিরুল ইসলাম মনু, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি বুদ্ধজ্যোতি চাকমা, রাঙ্গামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি জীতেন বড়–য়া, বান্দরবান প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য মোঃ বাদশা মিঞা মাষ্টার, বান্দরবান প্রেসক্লাব ভবন প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি একেএম জাহাঙ্গীর দৈনিক খাগড়াছড়ি প্রতিদিনের সম্পাদক তরুণ কুমার ভট্টাচার্য্য এবং বান্দরবান প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক বক্তৃতা করেন।
অনুষ্ঠানে বান্দরবান প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠায় অনন্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বান্দরবান প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপিকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়।
এছাড়া বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা ও প্রাক্তণ জেলা প্রশাসক নাজমুল আলম সিদ্দিকীকে প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য পদ দেয়া হয়েছে। সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদানের জন্য দৈনিক গিরিদর্পণ ও সাপ্তাহিক বনভূমির সম্পাদক এ,কে,এম মুকসুদ আহমেদ, বান্দরবান প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ বাদশা মিঞা মাস্টার, বান্দরবান প্রেসক্লাব ভবন নির্মাণকালীন প্রেসক্লাব সভাপতি এ,কে,এম জাহাঙ্গীর ও প্রতিদিন খাগড়াছড়ি পত্রিকার সম্পাদক তরুণ কুমার ভট্টাচার্য্যকে সম্মাননা দেয়া হয়।
এ উপলক্ষ্যে বান্দরবান প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও অতিথিদের সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।

পড়ে দেখুন

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা

চট্টগ্রাম ব্যুরো :: ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছেন সিইউজে …