শিরোনাম
প্রচ্ছদ / ব্রেকিং নিউজ / বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্ঠায় পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার খুবই জরুরী ——-দীপংকর তালুকদার

বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্ঠায় পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার খুবই জরুরী ——-দীপংকর তালুকদার

বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী
পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্ঠায় পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার খুবই জরুরী
——-দীপংকর তালুকদার

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার খুবই জরুরী হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় সদস্য দীপংকর তালুকদার। তিনি বলেন, সরকার পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্ঠার চেষ্ঠা করলেও আঞ্চলিক দল গুলোর অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানীর কারণে পাহাড়ের মানুষ শান্তিতে নেই। তিনি বলেন, পাহাড়ের খেটে খাওয়া মানুষ গুলোকে উপর অস্ত্রের শক্তি প্রয়োগ করে চাঁদাবাজী করছে। এই চাঁদাবাজী যদি বন্ধ না হয় তাহলে পাহাড়ের খেটে খাওয়া মানুষ গুলো আরো নিষ্পেষিত হবে। তিনি এই সকল অবৈধ অস্ত্রবাজ ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলারও আহবান জানান।
গতকাল বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় সদস্য দীপংকর তালুকদার এ কথা বলেন।
বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগের সভাপতি অংশেপ্র“ মারমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক রফিকুল মাওলা, বন পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক অভয় প্রকাশ চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া, জেলা পরিষদ সদস্য জ্ঞান চাকমা, জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য অভিলাষ তঞ্চঙ্গ্যা, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা সহ উপজেলা আওযামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাবলু রানা।
দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ের প্রতিটি পরিবার আজ চাঁদা দিতে হচ্ছে। এক কেজি হলুদ, আদা বাজার আনতে গেলে তাদের চাঁদা দিতে হয়। আঞ্চলিক সংগঠনের নাম ভাঙ্গিয়ে এ সকল চাঁদা বাজদের প্রতিহত করা না গেলে পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি কখনোই প্রতিষ্ঠিত হবে না। তিনি বলেন, পাহাড়ের মানুষের মুক্তি পেতে হলে এই সকল চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। প্রতিটি পাড়ায় পাড়ায় মহল্লায় মহল্লায় এ সকল চাঁদাবাজদের রুখে দিতে হবে। তবেই পার্বত্য শান্তি চুক্তির সুফল পাওয়া যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …