শিরোনাম
প্রচ্ছদ / ব্রেকিং নিউজ / রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে মহান বিজয় দিবসে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে মহান বিজয় দিবসে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে মনে ধারন করে দেশকে এগিয়ে নিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধারাই দেশের অগ্রগামী। আপনাদের পথ ধরেই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, জাতির পিতার স্বপ্ন ছিল দেশকে একটি সোনার বাংলাদেশ হিসেবে গড়তে। কিন্তু দেশ বিরোধী একটি কুচক্রী মহল তার সেই স্বপ্ন যাতে বাস্তবায় না হয় সে জন্য তাকে ও তার পরিবারকে হত্যা করেছিল। আজ তার সুযোগ্য কণ্যা ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে পরিশ্রম করে যাচ্ছে। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।
মহান বিজয় দিবস ২০১৬ উদযাপন উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যবর্গের শুক্রবার (১৬ডিসেম্বর) সকালে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমার সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি বিজিবি সেক্টর কমান্ডার আশরাফুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মোঃ মানজারুর মান্নান, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের জেলা কমান্ডার রবার্ট রোনাল্ড পিন্টু, সদর উপজেলা কমান্ডার মিজানুর রহমান রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ত্রিদীপ কান্তি দাশ, জেবুন্নেসা রহিম, সান্তনা চাকমা, রেমলিয়ানা পাংখোয়া, জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা বক্তব্য রাখেন। স্বাগত বক্তব্য দেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ মুখ্য নির্বঅহী কর্মকর্তা এস এম জাকির হোসেন।
অনুষ্ঠানে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক বলেন, এক একজন মুক্তিযোদ্ধা আমাদের জন্য এক একটি পতাকা, এক একটি দেশ। এদের ঋণ আমরা কোন দিনই শোধ করতে পারবোনা। যতদিন লাল সবুজের পতাকা নামে বাংলাদেশ নামে কোন দেশ থাকবে ততদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নাম স্বর্ণক্ষরে লেখা থাকবে।
সভাপতির বক্তব্যে পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পূর্বে ও দেশ স্বাধীনের পর দেশ বিরোধী কুচক্রী মহলটি একটি দেশ ধবংস করার পায়তারা করছে। তিনি বলেন, জাতির পিতার সুযোগ্য কণ্যা দেশের উন্নয়নে কাজ করছে। কিন্তু এই কুচক্রী মহলটি পদে পদে বাধা সৃষ্টি করছে। এদের বিরুদ্ধে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, চাকুরি ক্ষেত্রে কৌটা ও বিভিন্ন উন্নয়ণমূলক কাজ করছে। যা কোন সরকার করে নাই। সরকারের রূপকল্প ২০৪১ কে বাস্তবায়ন ও দেশের উন্নয়নের এই ধারাবাহিকতাকে অব্যহৃত রাখতে তিনি সকলকে এগিয়ে াাসারও আহ্বান জানান।
সংবর্ধনা শেষে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ এর পক্ষ থেকে রাঙ্গামাটির ৬জন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ২হাজার ৫শত টাকা করে এবং ৯৩জন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ১হাজার টাকা করে সম্মানী প্রদান করা হয়।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …