শিরোনাম
প্রচ্ছদ / তৃণমূল / অস্ত্র সহ জেএসএস এর কমান্ডো গ্র“পের সদস্য আটক

অস্ত্র সহ জেএসএস এর কমান্ডো গ্র“পের সদস্য আটক

অস্ত্র সহ জেএসএস এর কমান্ডো গ্র“পের সদস্য আটক

রাঙ্গামাটির রাঙ্গাপানি এলাকা থেকে প্রিয়লাল চাকমা ওরফে মেজর নামে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কমান্ডো গ্র“পের সদস্যকে আটক করেছেন যৌথ বাহিনী। গত শুক্রবার মধ্য রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার রাঙ্গাপানিস্থ বাসা থেকে তাকে একটি এলজি সহ গ্রেফতার করে যৌথবাহিনী। আটককৃত মেজর চাকমা পার্বত্য অঞ্চলের আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এর কমান্ডো গ্র“পের সদস্য।  গতকাল শনিবার তাকে যৌথ বাহিনীর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।  প্রিয়লাল চাকমা ওরফে মেজর তার স্বীকারোক্তিতে বলেন, সে দীর্ঘ ৯ বছর ধরে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস এর কমান্ড দলের সদস্য হিসাবে কাজ করছে। জেএসএস এ যোগ দেয়ার পর সে ভারতের ত্রিপুরা ঘাট এলাকায় অস্ত্রচালানোর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। সে পার্বত্য অঞ্চলের অপর আঞ্চলিক সংগঠন ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট ইউপিডিএফ এর সঙ্গে রাঙ্গামাটি সদর উপজেলায় ৩ বার সম্মুক যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেন। তার স্বীকারোক্তিতে তিনি বলেন, সশস্ত্র গ্র“পে অবস্থান করা কালীণ সময়ে অস্ত্রের দেখাশোনা করতেন এবং তার জন্য তিনি মাসিক ভাতাও পেতেন। পরিবরের জন্য বাড়ী ভাড়া, থাকা খাওয়ার টাকা জেএসএস তাতে দিতো। ছেলে মেয়েদের চিকিৎসা, লেখাপড়ার খরচ জেএসএস বহন করতো। তার স্বীকারোক্তিতে তিনি বলেন, ইউপিডিএফ এর সাথে মুখোমুখি যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেছি ৩ বার। তিন বারই বালুখালীর বসন্তমুখ শুভলং এর পানছড়ি, ক্ষারিক্ষং এলাকায় এই যুদ্ধ হয়। আমরা সশস্ত্র দলে আমরা ১২ জন এক সাথে অবস্থান গ্রহণ কতা। প্রতি ০২-০৩ দিন পর পরই থাকার জায়গা পরিবর্তন করতা। এছাড়া কোন জায়গায় আমরা ১৫ দিনের বেশী অবস্থান করতাম না। তিনি বলেন, আমরা কমান্ডো দলে হওয়ার কারণে আমাদের ছুটিও ছিলো। আমি ছুটিতে বাড়ীতে ছেলে মেয়েদের কাছে এসেছি।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …