শিরোনাম
প্রচ্ছদ / খাগড়াছড়ি / খাগড়াছড়ির সেনাবাহিনী হত-দরিদ্র গরীব-দু:খী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে

খাগড়াছড়ির সেনাবাহিনী হত-দরিদ্র গরীব-দু:খী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে

খাগড়াছড়ির সেনাবাহিনী হত-দরিদ্র
গরীব-দু:খী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে

॥ মোহাম্মদ আবু তৈয়ব, খাগড়াছড়ি ॥  ৪ শতাধিক শীতার্ত পরিবারকে কম্বল বিতরণ করলেন খাগড়াছড়ি রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার জেনারেল স ম মাহবুব উল আলম (ওএসপি, এসজিপি, পিএসসি)। পার্বত্য এলাকায় পৌষের কনকনে ঠান্ডায় খাগড়াছড়ির হতদ্ররিদ্র ও নিম্ন আয়ের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীদের উষ্ণতার পরশ দিয়েছে খাগড়াছড়ির সেনাবাহিনী। গতকাল শনিবার গভীর  রাত্রে বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় গিয়ে রিজিয়ন কমান্ডার অসহায় গরীবদের ঘুম থেকে ডেকে তুলে কম্বল বিতরন করেছেন। বিতরনের কম্বল পেয়ে আনন্দ-উল্লাসে মেতে উঠে গরীব- দু:খিরা।  ২০৩ পদাতিক ব্রিগ্রেডের খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার উদ্যোগে রিজিয়নের অন্তর্গত বিভিন্ন এলাকায় ৪ শতাধিক পরিবারের মাধ্যে কম্বল বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।
তিনি একাই বিশেষ টহল নিয়ে পায়ে হেঁটে দীঘিনালা-খাগড়াছড়ি সড়কের দূর্গম থংথাক পাড়া, ৪ মাইল যৌথ খামার, ৭ মাইল যৌথ খামার ও ৯ মাইল এলাকায় বসবাসরত প্রান্তিক জনগোষ্ঠীদের মাঝে জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে কম্বল বিতরণ করেছেন।
এসময় ১৪ইবি খাগড়াছড়ি সদর সেনা জোন অধিনায়ক লে: কর্ণেল জি এম সোহাগ, রিজিয়নের (জিটুআই) মেজর মুজাহিদুল ইসলাম, রিজিয়ন ও জোনের উর্ধ্বতন অফিসারসহ জনপ্রতিনিধিবৃন্দ ঐ সময় উপস্থিত ছিলেন।
৯মাইল এলাকার বাসিন্দা জোৎস্না ত্রিপুরা বলেন, আমাদের এলাকার অধিকাংশ মানুষের শীতবস্ত্র নেই। সেনাবাহিনী কম্বল বিতরণ করে অনেক উপকার করেছে। আমাদের আত্মা ভাল কাজের জন্য প্রার্থনা করবে।
একই এলাকার তপন কার্বারী ত্রিপুরা বলেন, সেনাবাহিনী এলাকার নিরাপত্তার পাশাপাশি আত্ম সামাজিক উন্নয়নে অনেক কাজ করছে। শীতের রাতে আমাদের গ্রামে এসে শীতার্তদের উষ্ণতা দেয়ার জন্য সেনাবাহিনীর কাজে গ্রামবাসী কৃতজ্ঞ।
প্রসঙ্গত, নিরাপত্তার পাশাপাশি পার্বত্য চট্টগ্রামের আত্মসামাজিক উন্নয়নে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পর্যটন ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় অকৃত্রিম অবদান রাখছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …