শিরোনাম
প্রচ্ছদ / বান্দরবান / বান্দরবানে লার্নিং এন্ড আর্নিং মেলার উদ্বোধন

বান্দরবানে লার্নিং এন্ড আর্নিং মেলার উদ্বোধন

বান্দরবানে লার্নিং এন্ড আর্নিং মেলার উদ্বোধন

“আমরা হবো জয়ী, আমরা দুর্বার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আইসিটি হবে হাতিয়ার” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবানে শুরু হয়েছে দিনব্যাপী লার্নি এন্ড আর্নিং মেলা । গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় বান্দরবান জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও লানিং এন্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ব্যবস্থাপনায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে এই মেলার শুরু হয়। সকালে ফিতা কেটে মেলার উদ্বোধন করেন পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি । এসময় জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অর্ণিবান চাকমা,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. হারুন অর-রশীদ,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন চৌধুরী,নেজারত ডেপুটি কালেক্টর হোসাইন মুহাম্মদ আল-মুজাহিদ ,সহকারী কমিশনার ইকতেখারুল ইসলাম,জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা শিলাদিত্য মুৎসুদ্দিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও বিভিন্ন আইটি সেক্টরের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে জেলা প্রশাসকের প্রাঙ্গনে শুরু হয় এক আলোচনা সভা ।
এসময় পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি  বর্তমান সরকারের উন্নয়নের নানা তথ্য তুলে ধরেন এবং বলেন, বর্তমান সরকারের নানান উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে দেশ আজ অনেক এগিয়ে গেছে । শিক্ষা স্বাস্থ্য যোগাযোগসহ সর্বক্ষেত্রে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হচ্ছে আর দেশের সর্বত্র ডিজিটাল সেবার মধ্য দিয়ে জনগন এর সুফল পাচ্ছে।
আলোচনা সভায় তিনি আরো বলেন“ বর্তমান ডিজিটাল প্রযুক্তি সারা বাংলাদেশের ন্যায় আমাদের বান্দরবান জেলাতে ও আজ আধুনিকায়নের ছোয়া লেগেছে প্রত্যেক টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এখন মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে ক্লাস পরিচালনা করা হচ্ছে ।  বক্তব্যে আরো বলেন বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং ও আউট সোসিং এই ২টি শব্দ খুবেই জন প্রিয় হয়ে উঠেছে। প্রযুক্তির কারণে আজ আমাদের দেশের মানুষ বিশে^র সাথে তালে তাল মিলিয়ে চলতে সক্ষম হচ্ছে। প্রযুক্তির কারনে আজ বাংলাদেশে বসে আমাদের দেশের সন্তানরা বিশে^র সাথে ফ্রিল্যারন্সিং ও আউট সোসিং এর কাজ করে প্রচুর পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে সক্ষম হচ্ছে।
আলোচনা সভা শেষে লানিং এন্ড আনিং প্রকল্পের আওতায় ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জেলার দুইজন উদ্যোক্তাকে একটি করে ল্যাপটপ প্রদান করেন অতিথিরা। এবারের লার্নি এন্ড আর্নিং মেলায় জেলার সরকারি বেসরকারি ২৪টি স্টল অংশ নেয়, আর আউট-সোসিং বিষয়ক সেমিনার ,ফ্রিল্যান্সার ট্রেনিং ও বিকেলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরনীর মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী এই মেলা শেষ হবে।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …