শিরোনাম
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / উপমহাদেশে ইসলামের বিজয় কেতন উড়িয়েছেন গরিবে নেওয়াজ (রহ.): সুফী মিজানুর রহমান

উপমহাদেশে ইসলামের বিজয় কেতন উড়িয়েছেন গরিবে নেওয়াজ (রহ.): সুফী মিজানুর রহমান

আনজুমানে আশেকানে মোস্তফা (দ) বাংলাদেশ এর উদ্যোগে খাজা গরিবে নেওয়াজ মঈনুদ্দিন চিশতী (রহ.) স্মরণে খাজা আশেকানে খাজা গরিবে নেওয়াজ সমাবেশ ১৮ ফেব্রুয়ারি শনিবার বিকেলে নগরীর জিইসি কনভেনশন হলে অনুষ্ঠিত হয়। আল আমিন হাশেমী দরবার শরিফের সাজ্জাদানশিন ও আনজুমানে আশেকানে মোস্তফা (দ) বাংলাদেশ এর সভাপতি পীরে তরিকত আল্লামা কাযী ছাদেকুর রহমান হাশেমীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন খাজা গরিবে নেওয়াজ (রহ) দরবারের গদিনশিন পীরে ত্বরিকত শাহসূফী মাওলানা সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া দস্তগীর। মুখ্য আলোচক ছিলেন পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান ইসলামী চিন্তাবিদ আলহাজ্ব সুফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। সমাবেশে প্রধান অতিথি সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া দস্তগীর বলেন, দেশে দেশে ইসলাম প্রচারিত ও প্রসারিত হয়েছে তলোয়ারের জোরে নয়; বরং আউলিয়ায়ে কেরামের উন্নত চারিত্রিক মাধুর্যে ও ভালোবাসার পরশ পেয়ে দলে দলে মানুষ ইসলামের ছায়াতলে আশ্রয় নেয়।

আজ ইসলামের উদারনীতি ও সর্বজনীন মানবপ্রেমের পথ ছেড়ে তলোয়ারের জোরে ইসলাম প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখার ফলে বিশ্বজুড়ে জঙ্গিবাদি বিভীষিকার জন্ম নিচ্ছে। এই বৈশ্বিক আপদ জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় সূফিবাদি মানবিক উদার ধারার ইসলামের প্রসার ঘটাতে হবে। দয়া, উদারতা, সহিষ্ণুতা, ভালোবাসা ও সম্প্রীতির সুবাতাস ছড়িয়ে দিয়ে বাসযোগ্য মানবিক সমাজ গড়তে হবে। মুখ্য আলোচক আলহাজ্ব সুফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন উপমহাদেশে ইসলামের বিজয় কেতন উড়িয়েছেন হযরত খাজা গরিবে নেওয়াজ মুঈনুদ্দিন চিশতি (রহ)। তিনি মানবিক গুণের সর্বোত্তম মানুষ ছিলেন। তাঁর অসাধারণ চারিত্রিক সৌষ্ঠব দেখে দলে দলে মানুষ ইসলামে দীক্ষিত হয়েছে। ইসলামের সর্বজনীন মানবিক দর্শন তাঁর জীবনাদর্শে ফুটে উঠেছে। তিনি বলেন, আউলিয়ায়ে ক্বেরাম আমাদের আধ্যাত্মিক দিশারী। তাদের স্মরণ ও অনুসরণের মাধ্যমে আমাদেরকে নাজাতের জিন্দেগী গড়তে হবে।

খাজা গরিবে নেওয়াজ সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন গরিবে নেওয়াজ (রহ.) দরবারের মুন্ততাজিম শাহসূফী সৈয়দ গোলাম আম্বিয়া দস্তগীর, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়ার শাইখুল হাদিস আল্লামা মুফতি ওবাইদুল হক নঈমী, ছাহেবজাদা সৈয়দ গোলাম দস্তগীর, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন, পীরে ত্বরিকত আল্লামা কাজী শাহেদুর রহমান হাশেমী, পীরে ত্বরিকত আল্লামা খায়রুল বশর হক্কানী। খাজা গরিবে নেওয়াজের (রহ) জীবনাদর্শনের উপর আলোচনায় অংশ নেন জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়ার অধ্যপক আল্লামা হাফেজ আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী, আহলে সুন্নাত ইমাম সংস্থার সভাপতি আল্লামা শাহ নূর মোহাম্মদ আলকাদেরী, আল্লামা আবুল হাশেম শাহ, আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান, আল্লামা সৈয়দ ইউনুছ রজভী, আল্লামা এনাম রেজা কাদেরী, আল্লামা হাফেজ শিব্বির আহমদ ওসমানী, আলহাজ্ব মুহাম্মদ নজমুল ইসলাম (দিল্লী), সমাজসেবী-সংগঠক আলহাজ্ব দিলশাদ আহমেদ, আশেকানে মোস্তফা (দ.) মোস্তফা তরুণ পরিষদের সভাপতি হাফেজ কাজী মাওলানা খালেদুর রহমান হাশেমী। সমাবেশ সঞ্চালনায় ছিলেন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক শাহজাদা কাজী আশিকুর রহমান হাশেমী মুজিব।

কুরআন থেকে তেলোয়াত ও নাতে রসূলের (দ.) মাধ্যমে সমাবেশ শুরু হয়। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাওলানা এম এ মতিন বলেন, সুফী সাধকরাই ইসলামের স্তম্ভ। তাঁরাই দ্বীন ইসলামকে ঠিকিয়ে রেখেছেন। আল্লামা হাফেজ আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী বলেন, অস্ত্রে ঝনঝনানি দেখিয়ে মানুষকে পিছমোড়া বেঁধে জবরদস্তির মাধ্যমে খাজা গরিবে নেওয়াজ (রহ) ইসলাম প্রচার করেন নি। তিনি দয়া ও ভালোবাসা দেকিয়ে ইসলাম প্রচার করে লক্ষ লক্ষ মানুষকে ইসলামে দীক্ষিত করেন। খাজা গরিবে নেওয়াজের দরবার গরিব মজনুন মানুষের ঠিকানা বলে তিনি উল্লেখ করেন। সভাপতির বক্তব্যে আল্লামা কাজী ছাদেকুর রহমান হাশেমী বলেন, দয়া ও ভালোবাসা দেখিয়ে আউলিয়ায়ে কেরাম দেশে দেশে ইসলামের ঝান্ডা উড্ডীন রেখেছেন। এই পথ থেকে বিচ্যুতির ফলে আজ সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। জঙ্গিবাদকে মোকাবিলা করতে হলে সূফিবাদিদের অনুসৃত পথ ও দর্শনকে সমুন্নত করতে হবে।

পড়ে দেখুন

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক ভাষা আন্দোলনের শহীদদের …