শিরোনাম
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / বর্ণাঢ্য আয়োজনে ডিসি হিলে শুরু হয়েছে ৩ দিনব্যাপি ১০ম বাঙালি সংস্কৃতি মেলা

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ডিসি হিলে শুরু হয়েছে ৩ দিনব্যাপি ১০ম বাঙালি সংস্কৃতি মেলা

‘চলো বাঙালির শেকড় সন্ধানে’ স্লোগানে গতকাল ৯ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার ডিসি হিলের নজরুল স্কয়ারে বর্ণাঢ্য কর্মসূচির মাধ্যমে শুরু হয়েছে ‘১০ম বাঙালি সংস্কৃতি মেলা- ১৪২৩’। সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান অবসর সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী চট্টগ্রামের এগিয়ে চলার ৩৪ বছরে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। সম্প্রতি প্রয়াত লোকগবেষক-শিল্পী আবদুল গফুর হালীকে উৎসর্গিত মেলার উদ্বোধনী দিনে ছিল চট্টগ্রাম উৎসব।

বিকেল ৩টায় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ১০ম বাঙালি সংস্কৃতি মেলার শুভ সূচনা ঘটে। বিকেল ৪ টায় বাঙালির চিরায়ত ঢোল বাদন, অবসর শিল্পীদের পরিবেশনায় জাতীয় সংগীত, একুশের গান, অবসর সংগীত এবং বাঙালি সংস্কৃতি মেলার গান ও শিল্পী আবদুল গফুর হালীর ‘রতন কাঞ্চন বোঝায় লইয়া ছাইড়লামরে সাম্পান’ শীর্ষক গান বেতার-টিভি শিল্পী আবদুর রহিমের কন্ঠে পরিবেশনের মাধ্যমে মেলার উদ্বোধন করেন সম্প্রতি বাংলা একাডেমী কর্তৃক ফেলোশীপপ্রাপ্ত সাহিত্যিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ জায়া-ভগ্নি বেগম মুশতারী শফী। নন্দিত কণ্ঠশিল্পী শেফালী ঘোষের গাওয়া শিল্পী মলয় ঘোষ  দারের চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান ‘ছোড ছোড ঢেউ তুলি পানিত্্’ এর সাথে নৃত্য পরিবেশন করে সুরাঙ্গন বিদ্যাপীঠের শিল্পীবৃন্দ। চট্টগ্রাম উৎসব উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর সভাপতি মাহবুবুল আলম। বিকেল ৫ টায় উদ্বোধনী আলোচনা, অবসর সাহিত্য পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন সিসিএন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, কুমিল্লার উপাচার্য ভাষাবিজ্ঞানী ড. মাহবুবুল হক।

অবসর সাহিত্য পুরস্কার দেয়া হয় কবি কমলেশ দাশগুপ্ত ও শিশুসাহিত্যিক রাশেদ রউফকে। বক্তব্য রাখেন নজরুল গবেষক ড. আলী হোসেন চৌধুরী, মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন বাচ্চু, ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা-সাংবাদিক বেলায়েত হোসেন ও চট্টগ্রাম একাডেমির পরিচালক কবি জিন্নাহ চৌধুরী। উদ্বোধনী পর্বে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা-সভাপতি প্রাবন্ধিক মোঃ সঞ্জিত আলম। সংগঠনের সাহিত্য সম্পাদক আঞ্জুমান আরা আমিন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ পর্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেলা পরিষদের মহাসচিব প্রণবরাজ বড়–য়া, শোক প্রস্তাব পাঠ করেন সংগঠনের সহ সাধারণ সম্পাদক সৌভিক চৌধুরী, মেলার ঘোষণাপত্র পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শফিক আহমেদ সাজীব। সাহিত্য পুরস্কার প্রাপ্ত দুই ব্যক্তিত্বের জীবনী পাঠ করেন চৌধুরী মিফতাহ্ ও আনিকা বুশরা অনি। পুরস্কর প্রাপ্ত ব্যক্তিদ্বয়ের হাতে পুরস্কার হিসেবে ক্রেষ্ট, সনদপত্র ও নগদ অর্থ তুলে দেন বেগম মুশতারী শফী ও ড. মাহবুবুল হক। আলোচকবৃন্দ বলেন বাঙালিকে শেকড়মুখী করার এ আন্দোলন অবসর তার জন্মালগ্ন থেকেই অব্যাহত রেখেছে। এ আন্দোলন আরও বেগবান হলে অপসংস্কৃতি অনায়াসে নিপাত যাবে এবং সন্ত্রাস নির্মূলে বাঙালি সংস্কৃতির আরও বেশী গতি প্রত্যাশিত। সংগঠনের সভাপতি মো: সঞ্জিত আলম বলেন অবসর বড়দের সাহিত্যের পাশাপাশি শিশু সাহিত্য চর্চাকারী ব্যক্তিত্বদেরও সমভাবে সম্মানিত করেছে, করছে এবং ভবিষ্যতেও করবে। উদ্বোধনী আলোচনা ও সাহিত্য পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের পর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চট্টগ্রামের গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের গান, নৃত্য ও আবৃত্তির অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন অবসর ও আমন্ত্রিত বেতার-টিভি শিল্পীবৃন্দ। শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন অরুণ সরকার দোদুল, লুপর্ণা মুৎসুদ্দী, রুমা দাশ, পেয়ার আহমেদ জিকু, রাব্বী গোলাম মাইনুদ্দিন, ইয়ামিন চৌধুরী ইমন, আনিকা বুশরা অনি, কেয়া চক্রবর্ত্তী প্রমুখ। আগামীকাল সকাল ১০টায় স্বাধীনতা উৎসবের সূচনা ঘটবে পিঠা উৎসব, আবৃত্তি ও সংগীত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ।

পিঠা প্রতিযোগিতায় যে কোন বয়েসীরা এবং আবৃত্তি ও সংগীত প্রতিযোগিতায় সপ্তম শ্রেনী পর্যন্ত পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীরা অংশ নিতে পারবেন। অংশগ্রহণের ইচ্ছুদের ডিসি হিলের মেলা মঞ্চে সকাল ৯.৩০ টার মধ্যে এসে নাম নিবন্ধন করতে হবে। বিকাল ৩টায় স্বাধীনতা উৎসব উদ্বোধন করবেন চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ ইকবাল বাহার, বিকাল সাড়ে ৩টায় মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক নাটক-ক্ষ্যাপা পাগলার প্যাঁচাল-পরিবেশন করবেন লোক থিয়েটার, গণ সংগীত পরিবেশন করবেন বিশিষ্ট গণসংগীত শিল্পী অশোক সেনগুপ্ত, বিকাল সাড়ে ৪টায় কবিতা উৎসবের প্রবন্ধ পাঠ করবেন কবি অভীক ওসমান, আলোচক থাকবেন কবি বিমল গুহ, স্বরচিত কবিতাপাঠে অংশ নেবেন নবীন-প্রবীণ কবিবৃন্দ। এই পর্বে কবি আকতার হোসাইনের কাব্যগ্রন্থ ‘হাড়ের হরিণী’ এর পাঠ উম্মোচন করা হবে।

বিকাল সাড়ে ৫টায় অবসর মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা দেওয়া হবে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষক ড. মাহফুজুর রহমানকে। বাঙালি সংস্কৃতি মেলা পদক দেয়া হবে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নানকে। শিল্পী আবদুল গফুল হালী স্মৃতি পদক দেওয়া হবে লোক গবেষক ড. মোহাম্মদ আবুল কাসেমকে। অবসর সংগঠন সম্মাননা দেয়া হবে বোধন আবৃত্তি পরিষদকে। প্রধান অতিথি থাকবেন সমাজবিজ্ঞানী, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন, বিশেষ অতিথি থাকবেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন ও লায়ন প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহ, আলোচক থাকবেন অধ্যাপক ফেরদৌস আরা আলীম, শিক্ষাবিদ হাসিনা জাকারিয়া বেলা ও রাজনীতিক মফিজুর রহমান। সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশাতœবোধক গান, আবৃত্তি ও নৃত্য পরিবেশিত হবে।

পড়ে দেখুন

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা

চট্টগ্রাম ব্যুরো :: ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) দ্বি–বার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছেন সিইউজে …