শিরোনাম
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / আলীকদমের প্রধান শিক্ষিকার বদলি আদেশ বাতিলে দাবিতে বিক্ষোভ ॥ বহিরাগতদের হামলায় ৪ শিক্ষার্থী আহত

আলীকদমের প্রধান শিক্ষিকার বদলি আদেশ বাতিলে দাবিতে বিক্ষোভ ॥ বহিরাগতদের হামলায় ৪ শিক্ষার্থী আহত

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি ঃবান্দরবানের আলীকদমে চম্পট পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হুমায়রা বেগমের বদলি আদেশ বাতিলের দাবিতে বিদ্যালয়ের অভিভাবক, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা বুধবার বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ও পুলিশ বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছেন।

এদিকে বিক্ষোভরত ছাত্র-ছাত্রীদের উপর বহিরাগতদের হামলায় ৪ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আহতরা হল শাহীনুর আক্তার ৪র্থ শ্রেণী, খতিজা আক্তার ৩য় শ্রেণী, ছালমা আক্তার ৪র্থ শ্রেণী ও জুবলি আক্তার ৪র্থ শ্রেণী। আহতদের আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। আহত ছাত্র-ছাত্রীরা জানিয়েছেন, সহকারী শিক্ষিকা জয়নব আরা বেগমের স্বামী শফিকুল ইসলাম, দেবর মুনির ও জহিরুল ইসলাম বিক্ষোভের সময় আমাদের মারধর করেছেন।

জানা গেছে, বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জয়নব আরা বেগমের বিদ্যালয়ের উপস্থিতিকে কেন্দ্র করে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এরই প্রেক্ষিতে প্রধান শিক্ষিকা হুমায়রা বেগমকে বদলি করা হয়েছে মর্মে বিদ্যালয়ে খবর আসে। তাৎক্ষণিক পরিচালনা কমিটি, অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক শিক্ষিকাগণ সহ স্থানীয় জনসাধারণ প্রধান শিক্ষকের বদলি আদেশ বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

অভিভাবক সজরুং ত্রিপুরা, অংহ্লাইতি ত্রিপুরা, ববিতা ত্রিপুরা, রেহেনা বেগম, গানুচিং তংচংগ্যা ও সেতারা বেগম সহ অনেকে জানায়, প্রধান শিক্ষিকা অত্র বিদ্যালয়ে যোগদান করার পর থেকে মেধা, শ্রম, আন্তরিকতা ও নিষ্টার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। যে কারণে ইতিমধ্যে তিনি সকল শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে। বর্তমানে এই বিদ্যালয়টি উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক বিদ্যালয়। আমরা বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পারি যে, তাকে বদলী করার জন্য বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জয়নব আরা বেগম বান্দরবান জেলা পরিষদ কার্যালয়ে মিথ্যা ও ভুয়া একটি অভিযোগ করেছে। ইতিমধ্যে তাকে বদলি করা হয়েছে। তাই আমরা বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করছি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হুমায়রা বেগম বলেন, কর্তৃপক্ষের যে কোন সিদ্ধান্ত মেনে নিতে আমি বাধ্য। আমি অফিস অর্ডার না পেতেই কতিপয় ব্যাক্তিরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমার বদলি হয়েছে বলে গুজব ছড়ানো কারণে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ ও মানবন্ধন করেছে।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুল আলম বলেন, প্রধান শিক্ষিকাকে মিথ্যা অভিযোগের প্রেক্ষিতে অত্র বিদ্যালয় হইতে বদলি করা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। বিদ্যালয়ের স্বার্থে তার বদলি আদেশ বাতিল করার জন্য আমরা সংশ্লিষ্টদের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

আলীকদম উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বাসু দেব কুমার সানা বলেন, প্রধান শিক্ষিকা হুমায়রা বেগমের বদলির কোন অফিস আদেশ আমরা পায়নি। বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য বিদ্যালয় গমন করে সকলকে বলে এসেছি।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …