শিরোনাম
প্রচ্ছদ / বান্দরবান / বান্দরবানে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুস্থদের মাঝে ভিজিএফ এর চাউল বিতরণ

বান্দরবানে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুস্থদের মাঝে ভিজিএফ এর চাউল বিতরণ

॥ রাহুল বড়–য়া ছোটন, বান্দরবান ॥ পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বান্দরবানে দুস্থদের মাঝে ভিজিএফএর চাউল বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় জেলা ত্রান ও পুর্নবাসন কার্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে বান্দরবান সদর উপজেলার সুয়ালক, রেইচা, কুহালং, রাজবিলা ও টংকাবতি ইউনিয়ের ৫ হাজার ৯শত পরিবারের মধ্যে এসব চাউল বিতরণ করা হয়। এসময় বিভিন্ন দুস্থ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত হয়ে লাইনে দাড়িয়ে এসব চাউল গ্রহণ করেন।
এসময় চাউল বিতরণ অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দুস্থদের মধ্যে এই চাউল বিতরণ করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ, সদর উপজেলা ভুমি কর্মকর্তা নুর-এ জান্নাত রুমী, সুয়ালক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উক্যনু মার্মা, রেইচা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাচ প্রু মার্মা সাবু, কুহালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সানু প্রু মার্মা সহ সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।
এসময় সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ৫ হাজার ৯শত পরিবারের মধ্যে প্রতি পরিবারকে ১০ কেজি করে  চাউল বিতরণ করা হয়।
এসময় চাউল বিতরণ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার পার্বত্য এলাকার সকল সম্প্রদায়ের যাতে আনন্দঘন পরিবেশে তাদের নিজ নিজ ধর্মপালন করতে পারে তার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। গরীব ও অসহায় মানুষের সেবায় সরকার বিভিন্ন অনুদান, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, শিক্ষা বৃত্তিসহ নানান সুযোগ সুবিধা সৃষ্টি করেছে। বান্দরবান একটি শান্তি ও সম্প্রীতির শহর। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বন্যা আর পাহাড় ধসে বেশ কিছু প্রাণহানী ও ক্ষয়ক্ষতি হওয়ায় সকলের জন্য অনেক কষ্টের পরিমান বেড়ে যায়। এসময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বান্দরবানের অনেক পাহাড়ের নিচে অনেকেই বাইরে টিন লাগিয়ে ভিতরে পাহাড় কেটে বাড়ি তৈরি করছে । আর এই ধরনের কাজের ফলে একুট বর্ষা আসলেই মাটি ভেঙ্গে বাড়ির উপরে পড়ছে আর ঘটছে প্রানহানী ।
জেলা ত্রান ও পুর্নবাসন কার্যালয়ের সুত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের মধ্যে সুয়ালক ইউনিয়নে ১৪৪৮ জন,রেইচা সদর ইউনিয়নে ১১৮৮ জন, কুহালং ইউনিয়নে ১৪০২ জন, রাজবিলা ইউনিয়নে ১১০২ জন ও টংকাবতি ইউনিয়নে ৭২০ জনকে এই চাউলগুলো বিতরণ করা হবে।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …