শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / জাতীয় শোক দিবসের নানা কর্মসূচিতে চট্টগ্রাম মেয়র

জাতীয় শোক দিবসের নানা কর্মসূচিতে চট্টগ্রাম মেয়র

অবিরল অশ্রুঝরা জাতীয় শোক দিবস ১৫ আগস্ট জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মানবপ্রাচীর, খতমে কোরআন, মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত এর মধ্য দিয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন দিনটি পালন করে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন সকাল সাড়ে ৮ টায় নগরভবনে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করে এবং ১মিনিট নিরবে দাঁড়িয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচির সূচনা করেন। পরে কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে এতিম সমাবেশ, খতমে কোরআন, মিলাদ মাহফিল, তবারুক বিতরণ ও বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সমন্বয়ে নগরীর সরকারি, বেসরকারি ও সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও সর্বস্তরের জনগনের অংশগ্রহনে মানবপ্রাচীর কর্মসূচি পালিত হয়। “শোকের শক্তিতে রুখবো দুর্নীতি, মাদক ও জঙ্গীবাদ” এ স্লোগান ধারণ করে আধঘন্টার মানবপ্রাচীরে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ও শিক্ষক অংশ গ্রহন করে। নগরীর টাইগার পাস মোড়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, কাউন্সিলর, কর্মকর্তা-কর্মচারী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রশাসনের উর্ধ্বতন নেতবৃন্দ মানবপ্রাচীরে অংশ গ্রহন করে। মানবপ্রাচীর চলাকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন, পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইকবাল বাহার বিপিপিএম, পিপিএম, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বক্তব্য রাখেন। এ ছাড়াও মানববন্ধনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সকল বিভাগীয় প্রধান, শাখা প্রধানসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে, মিলাদ মাহফিল ও মোনাজাত শেষে এবং মানবপ্রাচীর চলাকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক মানবতাবাদী বিশ্ব রাজনীতিবিদ ছিলেন। অসীমসাহসী, অসাধারণ প্রজ্ঞা, আর দুরদর্শিতা ছিল বঙ্গবন্ধুর গুণ। তিনি তরুণ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে সমাজ ও দেশ থেকে দুর্নীতি, মাদক ও জঙ্গীবাদ চিরতরে অবসানে অবদান রাখার আহবান জানান। মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন ও অগ্রগতির মহাসড়কে। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন, মাথা পিছু আয় বৃদ্ধি, আর্থসামাজিক উন্নয়নসহ নানা দিক থেকে বাংলাদেশ অগ্রগামী একটি রাষ্ট্র।  বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে জননেত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই। তাই স্বাধীনতা বিরোধী সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী এবং উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের বিরোধীদের অশুভ তৎপরতা ঐক্যবদ্ধ ভাবে মোকাবেলা করে সামনের দিকে এগুতে হবে। মেয়র শোকের এই দিনে জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলকে অঙ্গিকারাবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। মানবপ্রাচীর চলাকালে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইকবাল বাহার, বিপিপিএম, পিপিএম বলেন, সরকারের ভিশন বাস্তবায়নে একমাত্র অন্তরায় দুর্নীতি, মাদক ও জঙ্গীবাদ। এর বিরুদ্ধে সম্মিলিত জিহাদ এর মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের ভিশন বাস্তবায়ন করতে হবে।
চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বলেন, উন্নয়ন ও অগ্রগতির চাকা সচল রাখতে সামাজিক নিরাপত্তাসহ মানুষের স্বাভাবিক জীবনের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …