শিরোনাম
প্রচ্ছদ / খেলা / ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ-২৫৩/৬

ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ-২৫৩/৬

ন্যাথান লায়নের স্পিনে ৮৫ রানে প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে হারানো বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিং করা সাব্বির রহমানের সঙ্গে শতরানের জুটিতে দলকে মুশফিকুর রহিম নিয়ে গেছেন ভালো অবস্থানে

আশা হয়ে টিকে আছেন অধিনায়ক। এরই মাঝে পেয়েছেন অর্ধশতক। সঙ্গী নাসির হোসেনও খেলছেন আস্থার সঙ্গে।

প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশের স্কোর ২৫৩/৬। মুশফিক ৬২ ও নাসির ১৯ রানে খেলছেন। অবিচ্ছিন্ন সপ্তম উইকেটে দুই জনে গড়েছেন ৩১ রানের জুটি।

৭৭ রানে ৫ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সেরা বোলার অফ স্পিনার লায়ন। অন্য উইকেকটি নেন বাঁহাতি স্পিনার অ্যাশটন অ্যাগার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৯০ ওভারে ২৫৩/৬ (তামিম ৯, সৌম্য ৩৩, ইমরুল ৪, মুমিনুল ৩১, সাকিব ২৪, মুশফিক ৬২*, সাব্বির ৬৬, নাসির ১৯*; কামিন্স ০/৩৩, লায়ন ৫/৭৭, ও’কিফ ০/৭০, অ্যাগার ১/৪৬, ম্যাক্সওয়েল ০/৬, কার্টরাইট ০/১৬)

টেস্টে নাসিরের হাজার রান

ন্যাথান লায়নকে কাভার দিয়ে চার হাঁকিয়ে নিজের রান চার অঙ্কে নিয়ে গেছেন নাসির হোসেন। অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারের লেগেছে ৩১ ইনিংস। বাংলাদেশের চতুর্দশ ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে হাজার রানে গেলেন তিনি।

সাব্বিরকে ফিরিয়ে লায়নের পাঁচ

দ্বিতীয় নতুন বলে বাংলাদেশের প্রতিরোধ ভেঙেছে অস্ট্রেলিয়া। বোলিংয়ে ফিরেই সাব্বির রহমানকে ফিরিয়ে সিরিজে দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচ উইকেট নিয়েছেন ন্যাথান লায়ন।

অফ স্পিনারের বল পুল করতে গিয়ে পারেননি সাব্বির। ভারসাম্য হারানোয় উঠে যায় পেছনের পা, সামনের পা ছিল লাইনের ওপরে। ম্যাথু ওয়েড স্টাম্প ভেঙে দেওয়ার সময় লাইনের ভেতরে কোনো অংশ ছিল না।

৬৬ রান করা সাব্বির ফেরার সময় বাংলাদেশের স্কোর ২২২/৬। তার সঙ্গে ১০৫ রানের জুটি গড়া মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন নাসির হোসেন।

মুশফিকের অর্ধশতক, জুটির শতক

স্টিভেন ও’কিফের বলে দুই রান নিয়ে অর্ধশতকে পৌঁছেছেন মুশফিকুর রহিম। সঙ্গে সাব্বির রহমানের সঙ্গে জুটির রান নিয়ে গেছেন তিন অঙ্কে। ইনিংসে এটাই বাংলাদেশের প্রথম শতরানের জুটি।

১২৪ বলে ৪টি চারে অর্ধশতকে পৌঁছান বাংলাদেশের অধিনায়ক।

১৯৫ বলে এসেছে মুশফিক-সাব্বির জুটির শতক। এতে অধিনায়কের অবদান ৩৫। নিজের আগের সেরা ৬৪ ছাড়িয়ে যাওয়া সাব্বিরের ৬৫।

বাংলাদেশের দুইশ

সাব্বির রহমান ও মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে প্রথম ইনিংসে দুইশ ছাড়িয়েছে বাংলাদেশের সংগ্রহ। অবিচ্ছিন্ন ষষ্ঠ উইকেটে দুই জনে গড়েছেন অর্ধশত রানের জুটি। ৪০তম ওভারে তিন অঙ্ক ছুয়েছিল স্বাগতিকদের স্কোর। দুইশ রানে গেছে ৭৩তম ওভারে।

সাব্বিরের অর্ধশতক

সহজাত ব্যাটিংয়ে ৬২ বলে অর্ধশতকে পৌঁছান সাব্বির রহমান। সিরিজে নিজের প্রথম অর্ধশতকে পৌঁছাতে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

গত বছর অভিষেকের পর নিজের প্রথম ছয় ইনিংসে তিনটি অর্ধশতক পেয়েছিলেন সাব্বির। পরের আট ইনিংসে ছিল না একটাও। এবার দলের ভীষণ প্রয়োজনের সময় পেলেন ফিফটি।

মুশফিকসাব্বিরে প্রথম অর্ধশত রানের জুটি

বাংলাদেশকে প্রথম অর্ধশত রানের জুটি এনে দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও সাব্বির রহমান। অবিচ্ছিন্ন ষষ্ঠ উইকেটে পঞ্চাশ আসে ৯৮ বলে।

৬৪ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১৬৯/৫। সাব্বির ৩৪ ও মুশফিক ৩৩ রানে অপরাজিত।

মুশফিকসাব্বিরের দৃঢ়তা

শুরুতে মুমিনুল হক, পানি বিরতির পরপরই সাকিব আল হাসানকে হারানো বাংলাদেশ আর কোনো ক্ষতি ছাড়াই দ্বিতীয় সেশন কাটিয়ে দিয়েছে। লাঞ্চের পর ২ উইকেট হারিয়ে ৮৫ রান যোগ করেছে স্বাগতিকরা।

চা-বিরতিতে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ১৫৫/৫। মুশফিকুর রহিম ২৯ ও সাব্বির রহমান ২৪ রানে অপরাজিত। দুই জনে এরই মাঝে গড়েছেন ৩৮ রানের জুটি। নিজেকে গুটিয়ে রেখেছেন অধিনায়ক, সহজাত ব্যাটিং করছেন ন্যাথান লায়নকে ছক্কা হাঁকানো সাব্বির।

সকালে ৩ উইকেট নেওয়া লায়ন দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে ফেরান মুমিনুলকে। সাকিব আল হাসানকে ফেরান বাঁহাতি স্পিনার অ্যাশটন অ্যাগার।

সাকিবকে ফেরালেন অ্যাগার

পানি বিরতির পরপরই আঘাত হেনেছেন অ্যাশটন অ্যাগার। বাঁহাতি স্পিনারের অ্যাঙ্গেলে ভেতরে ঢোকা বলে উইকেটরক্ষক ম্যাথু ওয়েডকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন সাকিব আল হাসান।

২৪ রান করে সাকিব ফিরে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ১১৭/৫। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন সাব্বির রহমান। ম্যাচে এটাই বাংলাদেশের প্রথম ডানহাতি ব্যাটসম্যানদের জুটি।

বাংলাদেশের একশ

২২তম ওভারে পঞ্চাশ ছুঁয়েছিল সংগ্রহ, বাংলাদেশের একশ হল ৪০তম ওভারে। ন্যাথান লায়নের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে গেছেন প্রথম চার ব্যাটসম্যান। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম।

৪০ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১০০/৪।

মুমিনুলকে ফিরিয়ে লায়নের চার

মুমিনুল হককে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে নিজের চতুর্থ উইকেট নিয়েছেন ন্যাথান লায়ন। অফ স্পিনারের বল পিছিয়ে খেলতে গিয়ে ব্যাট ছোঁয়াতে পারেননি বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

৩১ রান করে মুমিনুল ফিরে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ৮৫/৪। সাকিব আল হাসানের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোনো ইনিংসে একই বোলার এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেললেন প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে।

ইতিহাসে মাত্র তৃতীয়বার

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে মাত্র তৃতীয়বার ব্যাটিং অর্ডারের প্রথম পাঁচে দেখা গেল বাঁহাতি ব্যাটসম্যানদের। এর আগে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিংয়ে দেখা মিলেছিল এমন চিত্রের।

পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা সাকিব আল হাসান রানের খাতা খোলেন প্যাট কামিন্সকে চার হাঁকিয়ে।

প্রথম সেশনে লায়নের উইকেট

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম সকালে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ২৯ রানের খরচায় তিনটি উইকেটই নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অফ স্পিনার ন্যাথান লায়ন। বাঁহাতি তিন ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস ও সৌম্য সরকার পড়েছেন এলবিডব্লিউর ফাঁদে।

লাঞ্চে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ৭০/৩। মুমিনুল হক ২৪ রানে অপরাজিত।

দুই অঙ্কে যেতে পারেননি একবার জীবন পাওয়া তামিম। তিন নম্বরে নেমে মানিয়ে নেওয়ার লড়াইয়ে থাকা ইমরুল ব্যর্থ আবারও।

ঢাকা টেস্টে দ্বিতীয় টেস্টের শেষ বেলায় আউট হওয়া সৌম্য আরও একবার ফিরেছেন বিরতির আগে। লাঞ্চের আগে শেষ ওভারে লায়নকে ভুল লাইনে খেলে হয়েছেন এলবিডব্লিউ।

সৌম্যকে ফিরিয়ে প্রতিরোধ ভাঙলেন লায়ন
লাঞ্চের আগে শেষ ওভারে বাংলাদেশের তৃতীয় উইকেট জুটির প্রতিরোধ ভেঙেছেন ন্যাথান লায়ন। অফ স্পিনারের দ্রুত গতির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে গেছেন সৌম্য সরকার।

৮১ বলে দুটি চার আর একটি ছক্কায় ৩৩ রান করে সৌম্য বিদায় নেওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ৭০/৩। চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা মুমিনুল হক অপরাজিত ২৪ রানে।

বাংলাদেশের পঞ্চাশ
অস্ট্রেলিয়ার আঁটসাঁট বোলিংয়ে রান পেতে সংগ্রাম করতে হচ্ছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। ২২তম ওভারে ৫০ ছাড়িয়েছে দলের সংগ্রহ।

২২ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৫৩/২। ক্রিজে আছেন দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার ও মুমিনুল হক।

রিভিউ নিয়ে ইমরুলকে ফেরাল অস্ট্রেলিয়া

তিন নম্বরে টানা তৃতীয় ইনিংসে ব্যর্থ ইমরুল কায়েস। ঢাকায় ০ ও ২ রান করার পর চট্টগ্রামে প্রথম ইনিংসে ৪।

ন্যাথান লায়নের বল সুইপ করতে গিয়ে ব্যাট ছোঁয়াতে পারেননি ইমরুল। জোরালো আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে রিভিউ নেয় অস্ট্রেলিয়া। তাতে পাল্টায় সিদ্ধান্ত, দ্বিতীয় উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

ইমরুল ফিরে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ২১/২। সৌম্য সরকারের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন দলে ফেরা মুমিনুল হক।

ফিরে গেলেন তামিম
ঢাকা টেস্টে জোড়া অর্ধশতক পাওয়া তামিম ইকবাল চট্টগ্রামে প্রথম ইনিংসে দুই অঙ্কে যেতে পারেননি। বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে প্রথম আঘাত হানেন অফ স্পিনার নাথান লায়ন।

দশম ওভারের প্রথম বলে ৯ রান করে তামিম ফিরে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ১৩/১। সৌম্য সরকারের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন ইমরুল কায়েস।

জীবন পেলেন তামিম

পেসার প্যাট কামিন্সের বলে জীবন পেলেন তামিম ইকবাল। বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাট ছুঁয়ে আসা ক্যাচ মুঠোয় নিতে পারেননি তৃতীয় স্লিপের ফিল্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। সে সময়ে ৬ রানে ব্যাট করছিলেন বাংলাদেশের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান।

১৯৩৮ সালের পর অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস উদ্বোধনে স্পিনার

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ওভার করেন এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার একমাত্র বিশেষজ্ঞ পেসার প্যাট কামিন্স। পরের ওভারে অফ স্পিনার নাথান লায়নের হাতে বল তুলে দেন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। ৭৯ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার কোনো স্পিনার ম্যাচের প্রথম ইনিংসে বোলিং উদ্বোধন করলেন। সবশেষ ১৯৩৮ সালে নতুন বলে শুরু করেছিলেন বিল ও’রিলি।

অস্ট্রেলিয়া একাদশে তিন স্পিনার
দুটি পরিবর্তন এসেছে অস্ট্রেলিয়া দলে। সিরিজে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকা অতিথিরা খেলছে এক বিশেষজ্ঞ পেসার আর তিন স্পিনার নিয়ে। চোট পেয়ে দেশে ফিরে যাওয়া পেসার জশ হেইজেলউডের জায়গায় একাদশে এসেছেন বাঁহাতি স্পিনার স্টিভ ও’কিফ।

প্রথম টেস্টের ব্যর্থতায় বাদ পড়েছেন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান উসমান খাওয়াজা। তার জায়গায় দলে ফিরেছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার হিল্টন কার্টরাইট।

শফিউলের জায়গায় মুমিনুল

এক পেসার নিয়ে খেলছে স্বাগতিকরা। দুই ম্যাচ পর একাদশে ফিরেছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক। বাদ পড়েছেন পেসার শফিউল ইসলাম। প্রথম টেস্টের বাংলাদেশ দল পরিবর্তন একটিই। অলরাউন্ডার মিলিয়ে ৯ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলছে মুশফিকুর রহিমের দল।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, নাসির হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, মুমিনুল হক।

ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সোমবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। টানা দুই টেস্টেই টস হারল অস্ট্রেলিয়া, দ্বিতীয়বারের মতো অতিথিরা পেল ফিল্ডিং।

অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশের স্বপ্ন
ঢাকা টেস্ট জিতে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামেও অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিততে চায় মুশফিকুর রহিমের দল।

এমন চাপে অস্ট্রেলিয়া সব সময় থাকে না, এমন সুযোগ সব সময় বাংলাদেশের সামনে আসে না। তাই সুযোগ দুই হাতে কাজে লাগানোর তাগিদ দিয়েছেন মুশফিক।

বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে জেতার পর কখনও টেস্ট সিরিজ হারেনি বা ড্র করেনি। দুইবার জিম্বাবুয়ে ও একবার হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …