শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / ষোড়শ সংশোধনী: রায় নিয়ে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত সংসদের

ষোড়শ সংশোধনী: রায় নিয়ে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত সংসদের

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং তার কিছু পর্যবেক্ষণের বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নিতে জাতীয় সংসদে একটি প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে

বিচার বিভাগের সিদ্ধান্তের বিষয়ে আইনসভায় বিরল এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ হয় বুধবার ৫ ঘণ্টার আলোচনার পর, যাতে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ১৮ জন সংসদ সদস্য অংশ নেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আদালত তার এখতিয়ারের বাইরে গিয়ে সংসদে আনা সংবিধান সংশোধন বাতিলের এই রায় দিয়েছে।

কী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে, তা স্পষ্ট করা না হলেও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, এই প্রক্রিয়ার কাজ তারা ইতোমধ্যে শুরু করেছেন।

আইনমন্ত্রী এর আগে সুপ্রিম কোর্টের এই রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করবেন বলে সংসদেই জানিয়ে বলেছিলেন, তাতে তারা ‘কামিয়াব’ হবে বলে আশাবাদী।

সংসদ সদস্যদের আলোচনায় রায় ও পর্যবেক্ষণকে কেন্দ্র করে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার সমালোচনাও হয়। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও তোলেন কেউ কেউ।

বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে নিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধন বাতিলের রায় গত ১ অগাস্ট বাতিলের পর থেকে এ নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে রাজনৈতিক অঙ্গনে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারা এই রায় ও রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। তারা প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিও তোলেন।

অন্যদিকে জিয়াউর রহমানের সামরিক সরকার আমলে প্রতিষ্ঠিত সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল ফিরিয়ে আনার এই রায়কে স্বাগত জানায় বিএনপি।

রায়ের পর সংসদ বসার পর তা নিয়ে আলোচনা হবে বলে ধারণাই ছিল রাজনৈতিক মহলে। জাসদের

মইন উদ্দীন খান বাদল সেই আলোচনার প্রস্তাব আনার পর তার প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নির্বাহী বিভাগ প্রথমে বিচারাঙ্গনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার পর এখন রাষ্ট্রের অন্য অঙ্গ আইনসভাকেও বিচার বিভাগের মুখোমুখি দাঁড় করাচ্ছে।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …