শিরোনাম
প্রচ্ছদ / কক্সবাজার / ২১টি দেশের নৌবাহিনীর অংশগ্রহণে বঙ্গোপসাগরে আর্ন্তজাতিক সমুদ্র মহড়ার উদ্বোধন করেন–রাষ্ট্রপতি

২১টি দেশের নৌবাহিনীর অংশগ্রহণে বঙ্গোপসাগরে আর্ন্তজাতিক সমুদ্র মহড়ার উদ্বোধন করেন–রাষ্ট্রপতি

ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ২১টি দেশের নৌবাহিনীর অংশগ্রহণে বঙ্গোপসাগরে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে আর্ন্তজাতিক সমুদ্র মহড়া ওগগঝঅজঊঢ-২০১৭ (ওঙঘঝ গঁষঃরষধঃবৎধষ গধৎরঃরসব ঝবধৎপয ্ জবংপঁব ঊীবৎপরংব)।  সোমবার (২৭-১১-২০১৭) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ কক্সবাজারের ইনানী বীচে এই মহড়ার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ মহড়ায় ওঙঘঝ (ওহফরধহ ঙপবধহ ঘধাধষ ঝুসঢ়ড়ংরঁস) এর ২৩টি সদস্য ও নয়টি পর্যবেক্ষক দেশের ৪১টি যুদ্ধজাহাজ, ৩টি মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফট ও চারটি হেলিকপ্টার অংশগ্রহণ করছে। এছাড়া, মহড়া উপলক্ষে সদস্য দেশসমূহের নৌবাহিনী প্রধান, উধর্¡তন নৌ কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন দেশের মেরিটাইম বিশেষজ্ঞগণ অংশগ্রহণ করছেন। ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশসমূহের নৌবাহিনীর মধ্যকার আঞ্চলিক সম্প্রীতি ও সহযোগিতা জোড়দার করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ নৌবাহিনী বঙ্গোপসাগরে এই আন্তর্জাতিক সমুদ্র মহড়ার আয়োজন করেছে। আগামী ২৮ ও ২৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত এ মহড়ায় যুদ্ধজাহাজসমূহে অগ্নিনির্বাপণ মহড়া, দূর্ঘটনা কবলিত জাহাজ হতে জরূরী উদ্ধার অভিযান ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদান, গভীর সমুদ্রে নিখোঁজ ফিশিং ট্রলার ও জেলেদের অনুসন্ধান, গভীর সমুদ্রে নিখোঁজ বিমান অনুসন্ধান ও বাণিজ্যিক জাহাজের অগ্নিনির্বাপনে সহায়তা প্রদান, দূর্ঘটনাকবলিত জাহাজকে পোতাশ্রয়ে ফিরিয়ে আনা, ফ্লিট রিভিউসহ বিভিন্ন মহড়া অনুষ্ঠিত হবে। আর্ন্তজাতিক এই সমুদ্র মহড়া ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের কৌশলগত গুরুত্ব বৃদ্ধি ও মেরিটাইম সহযোগিতার ক্ষেত্রে সদস্য দেশসমূহের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতাকে আরও জোরালো করবে। এছাড়া, এ অঞ্চলের সদস্য দেশসমূহের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে ব্লু-ইকোনমি ধারণাকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে সক্ষম হবে। পাশাপাশি এই মহড়া এ অঞ্চলে সমুদ্র নিরাপত্তার ঝুঁকি মোকাবিলা ও সমুদ্র বাণিজ্য রক্ষায় বহুপাক্ষিক সহযোগিতার ক্ষেত্রকে আরও সুদৃঢ় করবে।   উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কমান্ডার বিএন ফ্লিট রিয়ার এডমিরাল এম আশরাফুল হক ইমসারেক্সের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন। আইওএনএস এর বর্তমান চেয়ারম্যান নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ এবং আইওএনএস’র প্রতিষ্ঠাতা দেশ হিসেবে ভারতীয় নৌবাহিনী প্রধান শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন। পরে মহামান্য রাষ্ট্রপতি আইওএনএস রচনা প্রতিযোগিতা-২০১৬ এর বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মহামান্য রাষ্ট্রপতি তাঁর ভাষণে বলেন (ভাষণের কপি সংযুক্ত) এরপর, প্রধান অতিথি হেলিকপ্টারে এ মহড়ায় অংশগ্রহণকারী যুদ্ধজাহাজসমূহের ফ্লিট রিভিউ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে তিনি বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে অনুষ্ঠিত বর্ণাঢ্য বিচ কার্নিভালের উদ্বোধন করেন।  বর্তমানে আইওএনএস এর ২৩টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, ফ্রান্স, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, কেনিয়া, মালদ্বীপ, মরিশাস, মোজা¤ি¦ক, মায়ানমার, ওমান, পাকিস্তান, সৌদি আরব, সিসিলিস, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলংকা, তাঞ্জানিয়া, থাইল্যান্ড, তিমুর লেসেথ, সংযুক্ত আরব অমিরাত এবং যুক্তরাজ্য। অন্যদিকে নয়টি পর্যবেক্ষক দেশ হিসেবে রয়েছে চীন, জার্মানী, ইতালি, জাপান, মাদাগাস্কার, মালয়েশিয়া, নেদারল্যান্ডস, রাশিয়া এবং স্পেন। উল্লেখ্য, ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশসমূহের মধ্যকার মেরিটাইম সিকিউরিটি নিশ্চিতকরণ, পারষ্পরিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক উন্নয়ন, সন্ত্রাস ও চোরাচালান দমনসহ বিভিন্ন পেশাগত সহযোগিতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে ২০০৮ সালে ইন্ডিয়ান ওশান নেভাল সিম্পোজিয়াম (আইওএনএস) প্রতিষ্ঠিত হয়। আইওএনএস এর ১ম সম্মেলন ২০০৮ সালে ভারতে, ২য় সম্মেলন ২০১০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে, ৩য় সম্মেলন ২০১২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায়, ৪র্থ সম্মেলন ২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়ায় এবং ৫ম সম্মেলন ঢাকা, বাংলাদেশ এ অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমানে বাংলাদেশের নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, এনবিপি, ওএসপি, বিসিজিএম, এনডিসি, পিএসসি এই গুরুত্বপূর্ণ সংস্থাটির চেয়ারম্যানের দ্বায়িত্ব পালন করছেন।  অনুষ্ঠানে মন্ত্রীপরিষদের সদস্য, সেনা ও বিমান বাহিনীর প্রধান, সংসদ সদস্য ও বিভিন্ন পর্যায়ের  উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব এবং কুটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন।

পড়ে দেখুন

অধিক শস্য ফলনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হবার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার পাশাপাশি সকলকে সঞ্চয় করার …