শিরোনাম
প্রচ্ছদ / ব্রেকিং নিউজ / বাঘাইছড়ির দুরছড়িতে অগ্নিকান্ডে ২০টি বসতঘর পুড়ে ছাই

বাঘাইছড়ির দুরছড়িতে অগ্নিকান্ডে ২০টি বসতঘর পুড়ে ছাই

॥ জগৎ দাশ,বাঘাইছড়ি ॥ রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে খেদারমারা ইউনিয়নের দুরছড়ি বাজারের পার্শ্ববর্তি হাসপাতাল এলাকা সংলগ্ন কসাই পাড়ায় আগুনে আনুমানিক ২০টি ঘরবাড়ি সম্পূর্ণ পুড়ে ভূস্মিভুত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১লা মার্চ) আনুমানিক বেলা ১.১০মিনিটের দিকে মোটসাইকেল চালক হেলাল উদ্দিনের বাড়ি থেকে আগুনের এই সূত্রপাত বলে জানিয়েছেন স্থানীয় একটি সূত্র। আগুনে ক্ষতির পরিমান আনুমানিক ৪০ লক্ষ টাকা হতে পারে বলে স্থানিয় মতে জানা যায়।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাঘাইছড়ি উপজেলার কেদারমারা ইউনিয়নের দূরছড়িস্থ কসাই পাড়ার একটি বসতঘর আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে মুহুতে আগুন আশে পাশের বসতঘরে ছড়িয়ে পরে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুঠে যায় সেনাবাহিনীর একটি বিশেষ দল। তারা স্থানীয় এলাকাবাসী সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা করে। কিন্তু এ মধ্যে অগ্নিকান্ডে প্রায় ২০টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।
এলাকাবাসীরা জানায়, কপিল উদ্দিনের ছেলে হেলাল উদ্দিন পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘরের তুসকে মেসকাঠি দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। তাৎকনিক ভাবে আগুন চতুরদিকে ছড়িয়ে গিয়ে আনুমানিক ২০ পরিবার সম্পূর্ণ পুড়ে ছায় হয়ে যায়।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোঃ মহিন উদ্দিন ঘটনার সত্য স্বীকার করে বলেন, ঘটনার আগে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়িকে বিষয়টি জানানো হয়েছিল। তাদের সহযোগীতা না পেয়ে বাঘাইছড়ি থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবগত করি। তিনি বলেন, পুলিশ যদি বিষয়টি আমলে নিতো তাহলে হয়ত এই ক্ষতির স্বীকার থেকে বাঁচত।
এব্যাপারে বাঘাইছড়ি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমির হোসেন বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আগুন লাগানো ব্যাপারে সুনিদিষ্ট ভাবে কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এদিকে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবাদের শান্তনা দিতে উপজেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ
ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাদিম সরোয়ার আগুণে ক্ষতিগ্রস্থ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে যতটুকু করা সম্ভব তা করবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …