শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / ১৫ দিনেও খোঁজ নেই দুই ইউপিডিএফ নেত্রীর

১৫ দিনেও খোঁজ নেই দুই ইউপিডিএফ নেত্রীর

১৫ দিন পার হলেও রাঙ্গামাটির দুই ইউপিডিএফ নেত্রী মন্টি চাকমা ও দয়াসোনা চাকমার খোঁজ মেলেনি। অপহরণের অভিযোগে পরিবার থেকে থানায় মামলা হলেও এখনও কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।
রাঙ্গামাটির কোতয়ালী থানার ওসি সত্যজিত বড়–য়া বলেন, ‘অপহৃতদের উদ্ধারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত আছে। অন্য থানার অধীনে হওয়ায় মামলার আসামীদের গ্রেফতারে সেখানে রিকুইজিশন পাঠানো হয়েছে’।
তবে লাগাতার নানা কর্মসুচি পালন করেও দুই নেত্রীর ‘উদ্ধার’ না হওয়ায় সংগঠন থেকে হতাশা ও ক্ষোভ জানানো হয়েছে। এরই মধ্যে আজ (২ এপ্রিল) জেলার কাউখালী ও নানিয়ারচর উপজেলায় সকল স্কুল-কলেজে ক্লাশ বর্জন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে তিন নারী সংগঠন।
এছাড়া দুই নেত্রীর উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে নানিয়াচর ও কতুকছড়ি এলাকার চেয়ারম্যান, মেম্বার, হেডম্যান(মৌজা প্রধান) ও কার্বারী (গ্রাম প্রধান)সহ ১৮৮ জন জনপ্রতিনিধি স্বাক্ষর করে বিবৃতি দিয়েছেন। এতে দুই নেত্রীর উদ্ধার, অপহরণকারী তপন জ্যোতি চাকমা বর্মাসহ সহযোগীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান ও সন্ত্রাসীদের মদদদাতাদের বিরদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের তিন দফা দাবী জানানো হয়েছে।
রোববার (১ এপ্রিল) দুপুরে কুতুকছড়ি সাপছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বিবৃতি পাঠ করেন ১০৯নং সাপছড়ি মৌজার হেডম্যান দীপেন দেওয়ান। এসময় স্থানীয় ইউপি মেম্বার, হেডম্যান ও কার্বারীরা উপস্থিত ছিলেন।
১৫ দিনেও দুই নেত্রীর ‘উদ্ধার’ না হওয়ায় সংগঠন থেকে হতাশা ও ক্ষোভ জানানো হয়েছে। ১০৯নং সাপছড়ি মৌজার হেডম্যান দীপেন দেওয়ান বলেন, ‘আমরা স্থানীয় প্রশাসনের ওপর আস্থা রাখতে পারছিনা। দুই নেত্রীর উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাচ্ছি’। হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সদস্য রনিকা চাকমা বলেন, ‘প্রশাসন আন্তরিক না হওয়ায় দুই নেত্রীর উদ্ধারে বিলম্ব হচ্ছে’। নারী কার্বারী ডায়না চাকমা বলেন, ‘দুই নেত্রীর অপহরণের ঘটনায় স্পষ্ট হয়েছে যে, পাহাড়ের নারীরা নিরাপদ নন’। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ-পিসিপি’র রাঙ্গামাটি সভাপতি কুনেন্টু চাকমা বলেন, ‘দুই নেত্রীর উদ্ধার না হওয়ায় পাহাড়ে উদ্বেগ বাড়ছে’।
গত ১৮ মার্চ জেলার কুতুকছড়ি থেকে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের এই দুই নেত্রীকে অপহরণের জন্য মূল সংগঠন ইউপিডিএফ দায়ী করে প্রতিপক্ষ ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিককে। ২০ মার্চ রাতে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানায় অপহরণ মামলা করেন অপহৃত দয়াসোনা চাকমার বাবা বৃষধন চাকমা। মামলায় নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা ও ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা বর্মাসহ ১৯ জনকে আসামী করা হয়েছে।
এরপর থেকেই দুই নেত্রীর উদ্ধারের দাবীতে বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করে আসছে ইউপিডিএফ’র সহযোগী সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন।
দুই নেত্রীকে অবিলম্বে উদ্ধার ও ৩০ মার্চ নানিয়াচর কলেজ মাঠে তিন নারী সংগঠনের প্রতিবাদ সমাবেশে হামলার প্রতিবাদে আজ ২ এপ্রিল নানিয়াচর ও কাউখালী উপজেলায় সকল স্কুল-কলেজে ক্লাশ বর্জন কর্মসূচি ঘোষণা দেয়া হয়েছে। তবে এইচএসসি পরীক্ষা-পরীক্ষার্থীরা কর্মসূচির আওতামুক্ত থাকবে।
হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সাধারণ সম্পাদক কাজলী ত্রিপুরা ও ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি শান্তি প্রভা চাকমা এ কর্মসুচি ঘোষণা করেন।
এরআগে ২১ মার্চ রাঙামাটি ও খাগড়াছড়িতে অবরোধ পালন, ২২ মার্চ কুতুকছড়িতে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে প্রশাসনের প্রতি ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম ঘোষণা ও ২৩ মার্চ মানববন্ধনে করে সংগঠনগুলো।

পড়ে দেখুন

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক ভাষা আন্দোলনের শহীদদের …