শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / রাইফার মৃত্যু: সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে চট্টগ্রামের সম্পাদক বৃন্দের বৈঠক

রাইফার মৃত্যু: সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে চট্টগ্রামের সম্পাদক বৃন্দের বৈঠক

চট্টগ্রামের ম্যাক্স হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা ও চিকিৎসকের অবহেলায় সমকালের সাংবাদিক রুবেল খানের আড়াই বছরের শিশু রাইফা খানকে হত্যার বিচার দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদক বৃন্দ। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে চট্টগ্রামের সম্পাদক বেঠকে চট্টগ্রামের চিকিৎসা ব্যবস্থা ও সিস্টেমের আমুল পরিবর্তন আনার কথা বলেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে আয়োজিত ঐক্যবদ্ধ সাংবাদিকদের এক সভায় সম্পাদকবৃন্দরা সংহতি প্রকাশ করেন। এ মৃত্যু মেডিকেল মার্ডার কিনা তা খতিয়ে দেখার অনুরোধ জানানোয় হয় বৈঠক থেকে।
রুবেল খানের কন্যার মৃত্যুর ঘটনার তদন্ত করে দোষি চিকিৎসকদের বিচার ও চট্টগ্রামের চিকিৎসা ব্যবস্থায় অরাজকতার বিরুদ্ধে আয়োজিত সভায় উপস্থিত ছিলেন দৈনিক পূর্বকোণের সম্পাদক ডা. ম রমিজ উদ্দিন চৌধুরী, দৈনিক আজাদীর পরিচালনা সম্পাদক ওয়াহিদ মালেক, সুপ্রভাত বাংলাদেশের সম্পাদক রুশো মাহমুদ ও পূর্বদেশ পত্রিকার সম্পাদক মজিবুর রহমান।
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি কলিম সরোয়ারের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামল, সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, সিইউজের সাবেক সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, সিইউজের যুগ্ম সম্পাদক সবুর শুভ প্রমুখ।
সভায় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক মোয়াজ্জেমুল হক, নওশের আলী খান, খোরশেদ আলম, সিইউজের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী, বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব তপন চক্রবর্তী, প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক দেব দুলাল ভৌমিক, প্রেস ক্লাবের নির্বাহী সদস্য ম. শামসুল ইসলাম, সিনিয়র সাংবাদিক কামাল পারভেজ, সিইউজের সাংগঠনিক সম্পাদক ইফতেখারুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আহমেদ কুতুব প্রমুখ।
সভায় পূর্বকোণ সম্পাদক সম্পাদক ডা. ম রমিজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, সাংবাদিক রুবেল খানের শোকাহত পরিবারের মতো পূর্বকোণ পরিবারও শোকাহত। ম্যাক্স হাসপাতাল থেকে শিশু রাইফার লাশ বের হয়ে আসলো, বাবার হাতে সন্তানের লাশের ছবি দেখে আমি পাথর, স্তব্ধ ও বাকরুদ্ধ হয়ে যাই। আমি আশা করি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হবে। যারা ইচ্ছা ও অনিচ্ছাকৃতভাবে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের বিচার চাই। চট্টগ্রাম ও ঢাকায় চিকিৎসা ব্যবস্থায় অনেক সমস্যা আছে, এই চিকিৎসা সিস্টেমের পরিবর্তন আনতে হবে। চট্টগ্রামের ক্লিনিক ও হাসপাতালের উন্নয়ন হলে এ ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না।
আজাদীর পরিচালনা সম্পাদক রুশো মাহমুদ বলেন, রুবেল খানের কন্যার মৃত্যুতে আজাদী পরিবার শোকাহত। আমরা সকল সাংবাদিকদের সাথে আছি। রুবেল খানের কন্যার মতো অভিযোগ উঠা সকল মৃত্যুর তদন্ত হউক। যারা রোগী মৃত্যুর ঘটনায় দায়ি তাদের বিচার চাই। ডাক্তাররা রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করছেন। সাংবাদিকরা যাতে এ ধরণের কোন কাজ না করেন। রুবেল খানের কন্যার মৃত্যুর সুষ্ঠু বিচার হয় সেই চেস্টা করে যাবো আমরা।
সুপ্রভাত বাংলাদেশের সম্পাদক রুশো মাহমুদ বলেন, যেসব তথ্য-উপাত্ত এখন পর্যন্ত পেয়েছি আমি নিশ্চিত ভুল চিকিৎসা ও অবহেলার কারণে রাইফার মৃত্যু হয়েছে। এটা মেডিকেল মার্ডারের পর্যায়ে পড়ে কিনা তা তদন্ত কমিটিকে খতিয়ে দেখার অনুরোধ করছি। এখন পেশাজীবী সংগঠনের মধ্যে রাজনৈতিক প্রভাব থাকায় অযোগ্য ও বির্তকিত মানুষজন নেতৃত্বে চলে আসনে। এসব বির্তকিত ব্যক্তিদের চিহিৃত করে তাদের অতীত ও বর্তমান সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরার পর্যায়ে চলে এসেছে। এখনই এদের লাগাম টেনে ধরতে হবে। ধৈর্য্যরে সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করে রাইফা হত্যার বিচার নিশ্চিত করতে হবে।
পূর্বদেশ সম্পাদক মজিবুর রহমান বলেন, আমরা একজন মানুষ। নৈতিক মানুষ হিসেবে শিশু রাইফা অবহেলায় মৃত্যুর বিচার চাই। এ ঘটনায় পূর্বদেশ পরিবার সাংবাদিক সমাজের সঙ্গে রয়েছে।

পড়ে দেখুন

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক ভাষা আন্দোলনের শহীদদের …