শিরোনাম
প্রচ্ছদ / খাগড়াছড়ি / খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষে নিহত-৫, আহত-১, আটক-২

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষে নিহত-৫, আহত-১, আটক-২

॥ মোঃ আবু তৈয়ব খাগড়াছড়ি ॥ খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষে এক বিজিবি সদস্যসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৩ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলার গাজিনগর এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে নিহতরা হলেন, ৪০বিজিবি’র সিপাহী শাওন (৩৫), সাহাব মিয়া (মুছা) (৭০), আহমেদ আলী (৩০), আলী আকবর (৩০)। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ মাফিজ মিয়া ও হানিফ মিয়াকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে ফটিকছড়ি এলাকায় গেলে মফিজ মিয়া (৫০) মারা যায়। এদিকে স্বামী ও দুই সন্তানের মৃত্যুর খবর শুনে আলুটিলা বটতলীর নিজ বাড়িতে সাহাব মিয়ার স্ত্রী নঞ্জু বেগম (৬০) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত বেশ কয়েকজনকে মাটিরাঙ্গা হাসপাতালে চিকিৎধীন রয়েছে বলে জানা যায়।
জানা গেছে, মাটিরাঙ্গা উপজেলার গাজিনগর এলাকায় বিরোধপূর্ণ একটি জমিতে স্থানীয় কয়েকজন সকালে গাছ কাটতে গেলে বাধা দেন পলাশপুর জোনের বিজিবির সদস্যরা। এ নিয়ে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে একপর্যায়ে বিজিবির সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে স্থানীয়রা। সংর্ঘষ চলাকালে বিজিবি’র সদস্যসহ ৫জন নিহত হয়।
স্থানীয়রা ঘটনার জন্য বিজিবিকে দায়ী করে বলেন, সকালে গাছ কাটতে গেলে বিজিবি সদস্যদের বাঁধা দেয়াকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গ্রামবাসীর উপর অতর্কিত গুলি চালায় বিজিবি সদস্যরা।
অন্যদিকে বিজিবি জানায় অবৈধ ভাবে গাছ কাটার সময় বিজিবি সদস্যরা বাঁধা দিলে স্থানীয়রা তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে বিজিবি সদস্য শাওন ঘটনাস্থলে নিহত হয়। পরে আত্মরক্ষার্থে বিজিবি গুলি চালালে হতাহতের এই ঘটনার ঘটে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এই পরিস্থিতে অতিরিক্ত পুলিশ, বিজিবি, সেনাবাহিনী ও আনসার সদস্যদের মোতায়েন করে ঘটনাস্থলসহ পুরো এলাকা ঘিরে রেখেছে আইন-শৃংখলা বাহিনী।
মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামছুদ্দিন ভুঁইয়া সংঘর্ষে ৫জন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় নিহত বিজিবি সদস্যসহ দুজনের মরদেহ হাসপাতালে রয়েছে। অন্য দুজনের মরদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুই জনকে আটক করেছে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদেরকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে বলেও জানান তিনি।
সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মাটিরাঙা সার্কেল) খোরশেদ আলম বলেন, সংঘর্ষের কারণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। তদন্তের পর সঠিক কারণ জানানো যাবে।
এদিকে ঘটনার পর বিকেল ৩টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সেনাবাহিনীর গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শাহরিয়ার জামান, খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার মো. আব্দুল আজিজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম সারাহ উদ্দিন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিভীষণ কান্তি দাশ, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরশেদ খান। এ সময় সংঘর্ষের কারণ ও কি ঘটনা ঘটেছিল এইসব ব্যাপারে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের কাছ থেকে বিস্তারিত ঘটনাবলি শুনেন খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস। সে সময় তিনি গ্রামবাসীদের শান্ত থাকার পরামর্শ প্রদান করেন।
এসময় খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস জানান, এই সংর্ঘষের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।
এদিকে, খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষে এক বিজিবি সদস্যসহ পাঁচজন নিহত হওয়ার ঘটনা সুষ্ঠু তদন্তের আশা প্রকাশ করেছেন শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী) কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, এমপি।

পড়ে দেখুন

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক ভাষা আন্দোলনের শহীদদের …