শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / রাঙামাটি শহরের ৪ এলাকা অংশিক লকডাউন

রাঙামাটি শহরের ৪ এলাকা অংশিক লকডাউন

নির্মল বড়ুয়া মিলন,রাঙামাটি :: গত ২৯ এপ্রিল বুধবার ৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করে বাংলাদেশ ইন্সষ্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল ইনফেকসাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে করোনা শনাক্তের জন্য পাঠানো হয়। বুধবার ঐ ৪ জনের মধ্যে একজন সিনিয়র ষ্টাফ নার্সসহ করোনা পজেটিভ রিপোর্ট শনাক্ত হলে রাঙামাটি শহরের ৪টি এলাকার কিছু অংশ লকডাউন এর ঘোঘণা দিয়েছেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসন। আজ বুধবার ৬ মে বিকলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ।
তিনি বলেন, যে সমস্থ এলাকা থেকে রোগী সনাক্ত হয়েছে সেই সংশ্লিষ্ট এলাকার রোগীর আশা-পাশ পার্শ্ববর্তী স্থান সমুহকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।
রাঙামাটি জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, লকডা্উন করা এলাকা সমুহ হচ্ছে : রাঙামাটি শহরের রিজার্ভ বাজারের কিছু অংশ, দেবাশিষ নগরের কিছু অংশ, হাসপাতাল এলাকা সংলগ্ন মোল্লাপাড়া এলাকার কিছু এবং রাঙামাটি সদর হাসপাতাল এলাকার আক্রান্ত নার্সের ঘরটি।
রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) উত্তম কুমার দাশ জানান, আমরা সংশ্লষ্ট এলাকাগুলো লকডাউন ঘোষণা করেছি। রাঙামাটি সদর হাসপাতাল এলাকায় যেহেতু রাঙামাট মেডিকেল কলেজ এবং সদর হাসপাতাল অবস্থিত তাই সে আক্রান্ত নার্সের ঘরটি লকডাউন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য রাঙামাটি জেলা আর করোনামুক্ত রইলা না। শহরে ৪ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে।
আজ ৬ মে বুধবার এ ৪ জনের পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায়। ১ জন দেবাশীষ নগর, ১জন হাসপাতাল এলাকা, ১জন হাসপাতাল এলাকা সংলগ্ন মোল্লার টিলা ও ১জন রিজার্ভ বাজার এলাকার বাসিন্দা বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রাঙামাটি সদর হাসপাতালের কন্ট্রোলরুমের করোনা ফোকাস পারসন রাঙামাটি জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. মোস্তফা কামাল। তিনি আরো জানান আক্রান্তরা সকলে যারযার ঘরে রয়েছেন, তাদেরকে ঘরে থেকে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তারা এখনো সুষ্ঠ আছে।
গত ২৯ এপ্রিল বুধবার উক্ত ৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করে বাংলাদেশ ইন্সষ্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল ইনফেকসাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে করোনা শনাক্তের জন্য পাঠানো হয়। আজ বুধবার ঐ ৪ জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট শনাক্ত হয় বলে রাঙামাটি সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. শওকত আকবর সিএইচটি মিডিয়াকে এ তথ্য জানিয়েছেন। আক্রান্তদের ১ জনের বয়স ১৯, আরেকজনের ৩৮, অন্যজনের ৫০ এবং ৯ মাসের শিশু। তন্মধ্যে ৩ জন পুরুষ একজন মহিলা বলে সিএইচটি মিডিয়াকে জানান রাঙামাটি জেলা সিভিল সার্জন ডা. বিপাশ খীসা।
উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। গত ২ মাসে দেশের ৬৪টি জেলায় করোনারোগী শনাক্ত হলেও ৬০ দিনের মাথায় সর্বশেষ জেলা রাঙামাটিতে আজ ৪ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হলেন।
এ পর্যন্ত নমুনা পাঠানো হয়েছে ২৭০ জনের। রিপোর্ট পাওয়া গেছে ১৯৮ জনের। কোভিট-১৯ পজেটিভ পাওয়া গেছে ০৪ জনের এবং নেগেটিভ পাওয়া গেছে ১৯৮ জনের। রিপোর্ট পাওয়া বাকী আছে ৬৮ জনের। তবে আইসোলেশনে কোন রোগী নাই বলে রাঙামাটি সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. শওকত আকবর সিএইচটি মিডিয়াকে জানান।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …