শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / করোনা মহামারী কাটিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে রাঙ্গামাটির পর্যটন

করোনা মহামারী কাটিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে রাঙ্গামাটির পর্যটন

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ করোনার মহামারীর ধাক্কা কাটিয়ে ধীরে ধীরে প্রাণ ফিরছে পাহাড়ি জেলা রাঙ্গামাটির পর্যটন শিল্পী। করোনা মহামারির কারণে প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর গত ৪ আগষ্ট থেকে স্বল্প পরিসওে স্বাস্থ্য বিধি মেনে খুলে দেয়া হয়েছে পর্যটন কেন্দ্রগুলো। পর্যটন কেন্দ্র গুলো খুলে দেয়ায় হাসি ফুটেছে পর্যটক সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের। তবে কেউ কেউ মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। স্বাস্থ্যবিধি না মানায় রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিনিয়ত মোবাইল কোর্ট সহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।
প্রকৃতির রুপের রানী রাঙ্গামাটির পাহাড়, হ্রদ ও ঝরনার সৌন্দর্য মুগ্ধ করেছে রাঙ্গামাটিতে ঘুরতে আসা পর্যটকদের। করোনায় দীর্ঘদিন ধরে বাসায় বন্দি থাকার পর স্বামীসহ রাঙ্গামাটি বেড়াতে আসা কয়েকজন বলেন রাঙ্গামাটিতে ঘুরতে গিয়েছেন ঝুলন্ত সেতু আমাদের মুগ্ধ করেছে। পর্যটন থেকে ইঞ্জিনচালিত বোটে ঘুরে এসেছেন সুবলং ঝরনা কাপ্তাই হ্রদ আমাদেরকে মুগ্ধ করেছে।
বর্তমানে ধীরে ধীরে পর্যটকরা আসতে শুরু করেছেন রাঙ্গামাটিতে। পর্যটনের এ জেলা করোনায় প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর গত মাস থেকে সবার জন্য খুলে দেওয়া হয়। তাতেই প্রতিদিনই আস্তে আস্তে করে ভিড় করছেন পর্যটকরা।
নরসিংদী থেকে বেড়াতে আসা আলম বলেন, ‘এখানকার প্রকৃতি দেখে মনটা ভালো হয়ে যায়। চারদিকে সবুজ, স্বচ্ছ হ্রদের পানি তার ওপর ঝুলন্ত সেতু। অসাধারণ এক মুহূর্ত। দীর্ঘদিন বন্দি জীবনযাপনের পর কিছুটা সময় মুক্ত বাতাসে শ্বাস নিতেই পরিবারের সবাইকে নিয়ে রাঙ্গামাটি আসা।’
আরেক পর্যটক মোঃ হাসান জানান, করোনার কারণে ঘরবন্দি থেকে তারাও বিরক্ত হয়ে পড়েছেন। তাই পরিবার নিয়ে পাহাড় দেখতে এসেছেন। আগে রাঙ্গামাটি এলেও এবার দীর্ঘদিন ঘরবন্দি হওয়ার পর ঘুরতে এসে নিজেদের মধ্যে সজীবতা খুঁজে পেয়েছেন। নিজেকে নতুন করে প্রকৃতির মাঝে মেলে ধরতে পেরেছি। প্রকৃতির সজিবতা আমাকে আরো বেশী মুগ্ধ করেছে। রাতের নীরবতা চাঁদের আলো যেন অনেকটাই সুন্দর।
উল্লেখ্য করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত ১৮ মার্চ রাঙামাটির সব পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করা হয়। প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে পর্যটন কেন্দ্রগুলো। পর্যটকও আসছেন। ছুটির দিনগুলোতে বাড়ে দর্শনার্থী সমাগম। দীর্ঘসময় ঘরে বন্দী থাকার পর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে পর্যটকরা ভিড় করছেন পাহাড়, ঝর্ণা আর হ্রদের রাঙামাটিতে। দীর্ঘদিন পর ভ্রমণে বের হয়ে পর্যটকরা জানিয়েছেন তাদের উচ্ছ্বাসের কথা।

পড়ে দেখুন

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ রক্ষা” পরিষদের নিয়মিত মাসিক সভায় সম্মানিত সভাপতি আলহাজ¦ আবুল কালাম আজাদ এর …