শিরোনাম
প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / অন্ন বস্ত্ররে সমাধানরে পর গৃহহীনদরে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দচ্ছিনে বঙ্গবন্ধু কন্যা-তথ্যমন্ত্রী

অন্ন বস্ত্ররে সমাধানরে পর গৃহহীনদরে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দচ্ছিনে বঙ্গবন্ধু কন্যা-তথ্যমন্ত্রী

॥ ডস্কে রপর্িোট ॥ তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগরে যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলছেনে মানুষরে তনিটি মৌলকি চাহদিা, অন্ন বস্ত্র এবং বাসস্থান। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিা বাংলাদশেরে মানুষরে অন্ন ও বস্ত্ররে সমস্যার সমাধান অনকে আগইে করছেনে। এখন গৃহহীনদরে মাথা গোাঁজার জন্য ঠাঁই করে দচ্ছিনে বঙ্গবন্ধু কন্যা।
তনিি বলনে, বাসস্থানরে সমস্যা এখনও আমাদরে দশেে থকেে গছে।ে এই সমস্যাকে চহ্নিতি করে প্রধানমন্ত্রী মুজবির্বষে এবং স্বাধীনতার সুর্বন জয়ন্ততিে সমস্ত গৃহহীন মানুষকে ঘর করে দওেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করছেনে। এবং দশেে কোন গৃহহীন মানুষ থাকবে না, সইে ঘোষণা দয়িছেনে। ৭০ হাজাররে মতো পরবিাররে কাছে জমসিহ ঘররে দললি হস্তান্তর করে সইে ঘোষণা তনিি আজকে বাস্তবায়ন করে চলছেনে।
শনবিার (২৩ জানুয়ার)ি দুপুরে চট্টগ্রামরে রাকঙ্গুনয়িায় মুজবির্বষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিার উপহার আশ্রয়নরে ঘর ও জমরি দললি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতথিরি বক্তব্যে তনিি এসব কথা বলনে। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টা থকেে মুজবির্বষ উপলক্ষে ভুমহিীন ও গৃহহীনদরে পরবিারকে প্রধানমন্ত্রী র্কতৃক জমি ও ঘর প্রদান র্কমসুচি ভডিওি কনফারন্সেরে মাধ্যমে রাঙ্গুনয়িা উপজলো অডটিোরয়িামে তথ্যমন্ত্রীসহ রাঙ্গুনয়িার উপকারভোগী, সরকারি র্কমর্কতা, জনপ্রতনিধিি ও দলীয় নতোরা উপভোগ করনে।
রাঙ্গুনয়িা উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতা মাসুদুর রহমানরে সভাপতত্বিে ও সহকারি কমশিনার (ভুম)ি রাজবি চৌধুরীর সঞ্চালনায় দললি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বশিষে অতথিি ছলিনে চট্টগ্রাম জলো পুলশি সুপার এস এম রশদিুল হক, রাঙ্গুনয়িা উপজলো চয়োরম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, ভাইস চয়োরম্যান শফকিুল ইসলাম, এডভোকটে আয়শো আক্তার।
তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলনে, প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিা ঘোষণা দয়িছেলিনে, মুজবির্বষে আমরা গৃহহীনদরে ঘর করে দবেো। সইে ঘোষণা শুধু ঘোষণার মধ্যইে সীমাবদ্ধ থাকনে।ি তনিি তার রাষ্ট্রযন্ত্র ও দলকে কাজে লাগয়িে হাজার হাজার ঘর নর্মিাণ করে দয়িছেনে। আজকে একদনিে ৭০ হাজাররে মতো ঘর তনিি উদ্বোধন করছেনে।
তনিি বলনে, সমগ্র বাংলাদশেে আজকে যারা ঘর পয়েছেে তারা কখনও ভাবনেি এই ধরণরে একটি জমরি মালকিানাসহ দুই রুমরে একটি ঘর উপহার পাবনে। এই অভাবনীয় কাজ আজকে জাতীর জনকরে কন্যা শখে হাসনিা করছেনে। আমার জানা নইে পৃথবিীর অন্য কোন দশেে এভাবে একই দনিে ৭০ হাজার পরবিারকে ঘর দওেয়া উদ্বোধন হয়ছেে কনিা।
ড. হাছান মাহমুদ বলনে, বাংলাদশে আগে ছলি খাদ্য ঘাটতরি দশে, এখন খাদ্য উদ্বৃত্তরে দশে, র্অথাৎ আমরা ক্ষুদাকে জয় করছে।ি ভরদুপুরে কংিবা সন্ধ্যার পরে শহররে অলগিলতিে কংিবা গ্রাম গ্রামান্তরে “মা আমাকে একটু বাসি ভাত দনে” সইে ডাক এখন আর শোনা যায়না। কারণ বাসি ভাতরে সমস্যা সমাধান হয়ে গছেে অনকে আগ।ে আজকে কোন ভক্ষিুক চাল ভক্ষিা নয়ে না, কারণ চালরে প্রয়োজন এখন আর নইে।
তনিি বলনে, দশেকে ভক্ষিুকমুক্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী উদ্যোগ নয়িছেনে, এরপরও কছিু কছিু ভক্ষিুক আছ।ে তবে শুধু ভক্ষিুক যে বাংলাদশেে আছে তা নয়, অনকে দশেে ভক্ষিাবৃত্তি নষিদ্ধি হওয়া সত্ত্বওে র্মাকনি যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপরে বভিন্নি দশেওে ভক্ষিুক আছ।ে বাংলাদশেে যদি কউে ভক্ষিুককে এখন দুই টাকা দইে, ভক্ষিুক তাকে দুইটা গালি দবে।ে ৫ টাকা দলিে আপাদমস্তক থাকয়িে দখেব,ে মানুষটা কমেন। লাল রঙরে ১০টাকার নোট দলিে মোটামুটি খুশি হব,ে তবে পুরাপুরি না। এই হচ্ছে আজকে বাংলাদশেরে পরস্থিতি।ি
তথ্যমন্ত্রী বলনে, আজকে বাংলাদশেে কোন ছঁেড়া কাপড় পড়া ও খালি পায়ে মানুষ দখো যায়না। আগে আমাদরে দশেে বদিশে থকেে পুরনো কাপড় আসতো, সগেুলো ধোলাই করে হর্কাস র্মাকটেে বক্রিি হতো। সগেুলো কনিে আমরা পড়ে সাহবে সাজার চষ্টো করতাম। আর এখন বাংলাদশে থকেে তরৈি পোষাক বদিশেে রপ্তানি হয়, আর সগেুলো বদিশেরে বড় বড় র্মাকটেে বক্রিি হয়, এবং সগেুলো পড়ে সখোনকার সাহবেরা তাদরে সাহবেগরিি ঠকি রাখ,ে র্অথাৎ পরস্থিতিি এখন উল্টে গছে।ে
যারা ঘর পয়েছেনে তাদরে উদ্দশ্যেে তথ্যমন্ত্রী বলনে, আপনারা যারা ঘর পয়েছেনে তারা কখনও চন্তিা করনেনি জমসিহ এরকম একটি ঘর পাব,ে কন্তিু তারা ঘর পয়েছেনে। এটি কোন সরকার দয়িছেে সটেি মনে রাখতে হব।ে এটি দয়িছেে আওয়ামী লীগ সরকার, নৌকা র্মাকার সরকার, এটি দশেরে সবধরনরে ভোটরে সময়ও মনে রাখতে হব।ে ভোটরে সময় আসলে অনকে রকমরে দল আপনাদরে সামনে হাজরি হব,ে তাদরে বলতে হবে কখনো আমাদরে খবর নাওন,ি বদমাইশরা আবার এসছেো ধোঁকা দতি,ে এমন করে তাদরে জবাব দতিে হব।ে
তনিি বলনে, যদি বঙ্গবন্ধু কন্যা শখে হাসনিা ক্ষমতায় না থাক,ে এখন যে গৃহহীনরা ঘর পয়েছেে তা অন্যরা ক্ষমতায় এলে কড়েে নবে।ে নৌকা র্মাকার সরকার ক্ষমতায় না থাকলে অন্য কাউকওে এভাবে আর কউে ঘর করে দবেনো।
প্রধানমন্ত্রীর আহবানে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ নজিরে নর্বিাচনী এলাকায় নজিরে ও দলরে নতেৃবৃন্দরে র্অথায়নে এধরণরে কমপক্ষে ৫০টি ঘর করে দবেনে বলওে জানান অনুষ্ঠান।ে

পড়ে দেখুন

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

॥ ডেস্ক রিপোর্ট ॥ অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক ভাষা আন্দোলনের শহীদদের …